logo

সোমবার ১৯ জুন ২০১৭, ০৫ আষাঢ় ১৪২৪, ২৩ রমজান ১৪৩৮

শিরোনাম

বনানীতে ছাত্রী ধর্ষণ : অভিযোগের শুনানি ৯ জুলাই
১৯ জুন, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
বনানীতে দুই ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনার মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) গ্রহণ করেছেন ট্রাইব্যুনাল। আজ সোমবার ঢাকার ২নং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শফিউল আজম অভিযোগপত্র গ্রহণ করে শুনানির জন্য ৯ জুলাই দিন ধার্য করেছেন।
এর আগে গত ১২ জুন একই আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণের জন্য আজকের দিন ধার্য করেন।
গত ৮ জুন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম দোলোয়ার হোসেনের আদালতে সাফাতসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের নারী সহায়তা ও তদন্ত বিভাগের পরিদর্শক ইসমত আরা এমি। অভিযোগপত্রে সাক্ষী করা হয়েছে ৪৭ জনকে।
এরপর ১২ জুন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম হাফিজুর রহমান মামলাটি ঢাকার দুই নং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারের জন্য বদলির আদেশ দেন।
আদেশ অনুযায়ী মামলাটির নথি ঢাকার দুই নং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ওই দিনই পাঠিয়ে দেয়া হয়। এরপর এই মামলার অভিযোগ গঠনে ১৯ জুন নির্ধারণ করেন ট্রাইব্যুনাল।
মামলায় অভিযুক্ত পাঁচজন হলেন- আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, তার বন্ধু সাদমান সাকিফ, নাঈম আশরাফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন ও দেহরক্ষী রহমত আলী।
প্রসঙ্গত, গত ২৮ মার্চ বনানীর ‘দ্য রেইন ট্রি’ হোটেলে সাফাত আহমেদ তার জন্মদিনে পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে দাওয়াত দিয়ে হোটেল কক্ষে আটকে রেখে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ উঠে। এরপর ঘটনার ৪০ দিন পর ৬ মে সন্ধ্যায় ধর্ষিত এক ছাত্রী ঘটনার বিবরণ দিয়ে সাফাতসহ পাঁচজনকে আসামি করে মামলা করেন।

সর্বশেষ খবর

প্রথম পাতা এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by