logo

বৃহস্পতিবার, ১২ জুলাই ২০১৮, ২৮ আষাঢ় ১৪২৫, ২৭ শাওয়াল ১৪৩৯

শিরোনাম

নতুন ম্যাচ, নতুন দিন বলেই আশাবাদী সাকিব
১২ জুলাই, ২০১৮
স্পোর্টস ডেস্ক
অ্যান্টিগাতে বাজে ব্যাটিংয়ে হারের দগদগে ক্ষত এখনও সেরে ওঠেনি। সেটা সারিয়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে জ্যামাইকার স্যাবাইনা পার্কে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। প্রথম টেস্টে অসহায় আত্মসমর্পণের পর ঘুরে দাঁড়াতে পারবে তো বাংলাদেশ? ম্যাচ নতুন, দিনটাও; আর সেটাই আশাবাদী করে তুলছে বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে।

শুরুতেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে জ্যামাইকা টেস্টে বাংলাদেশ চালকের আসনে বসবে প্রত্যাশা বাঁহাতি অলরাউন্ডারের। দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তদের আশার বাণী শোনালেন সাকিব, ‘অ্যান্টিগার স্মৃতি ভুলে ছেলেরা যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। সবাই জানে আমরা আগের ম্যাচে ভালো করিনি। কিন্তু আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) নতুন ম্যাচ, নতুন দিন। আমরা এই ম্যাচটি খেলতে মুখিয়ে আছি। আশা করি ভুলগুলো শুধরে নিজেদের প্রমাণ করতে পারবো।’

অ্যান্টিগা ও জ্যামাইকার উইকেটের অনেক মিল। তাই এই টেস্টেও ক্যারিবিয়ান পেসারদের সামনে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে। বিষয়টি ভালো করেই জানেন সাকিব।

যদিও এত কিছু না ভেবে প্রতিটি সেশন আলাদা করে জেতার স্বপ্ন দেখছেন অধিনায়ক। ম্যাচের বেশির ভাগ সেশন নিজেদের করে নিতে পারলে জেতা সম্ভব জানালেন সাকিব, ‘ম্যাচটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা খেলাটা কীভাবে শুরু করি সেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাটিং কিংবা বোলিং যেটাই করি না কেন, আমাদের শুরুটা ভালো করতে হবে। শুরুর ধারাটা আমাদের ধরে রাখতে হবে। পাঁচ দিনের খেলা, আমাদের বেশির ভাগ সেশন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করতে হবে। তাহলেই আমরা ম্যাচটা জিততে পারবো। ’

আগের টেস্টে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ইনিংস ও ২১৯ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। এই হতাশা ঝেড়ে ফেলে শেষ ম্যাচে পারফরম্যান্সের উন্নতি করতে চান সাকিব, ‘স্বাভাবিকভাবেই প্রথম ম্যাচের ফলাফল খুবই হতাশাজনক। আমরা জানতাম ম্যাচটা আমাদের জন্য কঠিন হবে। তবে আমাদের পারফরম্যান্স যথেষ্ট ছিল না। অবশ্যই আমাদের পারফরম্যান্সে উন্নতি করতে হবে। সবাই মুখিয়ে আছে নিজেদের সেরাটা দিতে।’

উইকেট যেমনই হোক না কেন। এইসব নিয়ে বাড়তি ভাবনা না ভেবে দ্রুত মানিয়ে নেওয়ার কাজটা করতে চান সাকিব, ‘আমি মনে করি এখানে (জ্যামাইকা) একটু বেশি গতি ও বাউন্স থাকবে। অ্যান্টিগার তুলনায় এখানে ধারাবাহিক বাউন্স প্রত্যাশা করছি। আমি মনে করি উইকেট যথেষ্ট সতেজ হবে। আমরা যদি আমাদের কাজটা ঠিক মতো করতে পারি তাহলে ভালো করা সম্ভব, সেটা আগে ব্যাট কিংবা বোলিং করেই হোক। আমাদের উইকেটের সাথে দ্রুত মানিয়ে নিতে হবে।’

সর্বশেষ খবর

খেলায় খেলায় এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by