logo

বৃহস্পতিবার, ১১ অক্টোবর ২০১৮, ২৬ আশ্বিন ১৪২৫, ৩০ মহররম ১৪৪০

কাশিমপুর কারাগারে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার আসামিরা
১১ অক্টোবর, ২০১৮
নিউজ ডেস্ক
২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণার পর আদালত থেকে ৩১ আসামিকে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বুধবার (১০ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৩টায় তাদের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে আসা হয়। এর আগে সকালে কড়া নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে তাদের আদালতে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে কাশিমপুর হাই-সিকিউরিটি কারাগারের জেল সুপার বিকাশ রায়হান ও কেন্দ্রীয় কারাগার (১ ও ২) এর ভারপ্রাপ্ত সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা বলেন, আদালতের রায়ের কপি কারাগারে এসে পৌঁছালে ফাঁসি ও যাবজ্জীবনসহ দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের কারাবিধি মোতাবেক কয়েদির পোশাক পরানো হবে।

এর মধ্যে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত হওয়ায় আগে থেকেই কয়েদির পোশাকে কারাগারে আছেন। তিনি কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এ ফাঁসির কনডেম সেলে বন্দি রয়েছেন।

এ ছাড়া, বিএনপি নেতা সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টু, হুজি নেতা আরিফ হাসান সুমন ও মাওলানা আব্দুর রউফ, পুলিশের সাবেক আইজি আশরাফুল হুদা ও শহিদুল হক, অতিরিক্ত আইজি খোদা বকস, খালেদা জিয়ার ভাগ্নে লে. কমান্ডার (অব.) সাইফুল ইসলাম ডিউক, সিআইডির সাবেক বিশেষ পুলিশ সুপার রুহুল আমীন, সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আব্দুর রশিদ ও মুন্সি আতিকুর রহমান, ঢাকা মহানগর বিএনপির নেতা আরিফুর রহামান আরিফ, এন এস আইয়ের সাবেক মহাপরিচালক মেজর জেনারেল (অব.) রেজ্জাকুল হায়দার চৌধুরী এবং ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আব্দুর রহিম কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এ বন্দি রয়েছেন। রায়ের কপি কারাগারে আসলে কারাবিধি মোতাবেক তাদেরও কয়েদির পোশাক পরানো হবে।

কাশিমপুর হাই-সিকিউরিটি কারাগারের জেল সুপার বিকাশ রায়হান আরও বলেন, ‘গ্রেনেড হামলা মামলার ১৭ আসামি এই কারাগারে বন্দি ছিলেন। সকালে তাদের কড়া নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে ঢাকায় আদালতে পাঠানো হয়। বিকালে তাদের কারাগারে ফেরত আনা হয়েছে।’

সর্বশেষ খবর

শেষ পাতা এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by