logo

বুধবার ১৯ এপ্রিল ২০১৭,০৬ বৈশাখ ১৪২৪,২১ রজব ১৪৩৮

শিরোনাম

পরিবেশ তৈরী হলে নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি: মির্জা ফখরুল
১৯ এপ্রিল, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেছেন, দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করুন। আমরা একটি সুষ্ঠু নির্বাচনে অংশ নিতে চাই। বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি একথা বলেন।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, কোনো ব্যক্তি বা দলের জন্য নয় আমাদের আন্দোলন গণতন্ত্র পুন:প্রতিষ্ঠা ও দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য।
তিনি বলেন, আমরা যে আন্দোলন করছি এটি কোনো ব্যাক্তির জন্য নয়, কোনো দলের জন্য নয়, এটি বাংলাদেশের মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলন। এটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা স্বার্বভৗমত্ব রক্ষার আন্দোলন।
সরকারকে উদ্দেশ্য করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, আপনাদের শুভ বুদ্ধির উদয় হোক। আপনারা নির্বাচন দিন। সেই নির্বাচন হতে হবে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে এবং একই সঙ্গে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে। আজকে সারা বাংলাদেশের মানুষ কারাগারের মধ্যে বন্দী হয়ে আছে। সেই কারাগার থেকে অবশ্যই বেরিয়ে আসতে হবে। সকল দলমত এক হয়ে জাতিয় স্বার্থে আন্দোলনের জন্য আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরে গিয়ে কিছুই আনতে পারেননি। সবকিছু অবলীলায় বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন। তিস্তাসহ অভিন্ন ৫৪ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, শুধু তিস্তার পানি নয় ৫৪ টি অভিন্ন নদীর পানি ব্যাপারেও কোনো চুক্তি করতে পারেনি প্রধানমন্ত্রী। অথচ গত কয়েক বছর ধরে তারা ক্ষমতায় আসার পরে যে বিষয়গুলো ছিল বাংলাদেশের জন্য ট্রামকার্ড, দরকসাকশির প্রধান মাধ্যম সেগুলোকে তিনি অবলিলায় ভারতের হাতে তুলে দিয়েছে। ট্রানজিট দিয়েছেন, ব্যবসা-বাণিজ্য করছে কিন্তু আমরা এখন পর্যন্ত কিছুই পাইনি। তিনি ভারত থেকে ফিরে এসে বলেছেন, পানি মাংতা, ইলেকট্রিসিটি মিলা, কুচতা মিলা। আমাদের অবস্থা দাঁড়িয়ে এখন সেই কুচ মিলার জায়গায়।
মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারের এই যে নতজানু মনোভাব। এই মনোভাব দিয়ে কোনা কিছু আদায় করা যায় না। এই সরকার ব্যর্থ হওয়ার একটিই কারণ তারা জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নয়, জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে। যারা তাদেরকে ক্ষমতায় টিকে রেখেছে তাদের কাছে তারা নিজেদের, জনগণের দাবি দাওয়া গুলো তুলে ধরতে পারছে না, দাবি আদায়ও করতে পারছে না। আমাদের নিজেদের যা প্রয়োজন তা নিজেদেরই আদায় করতে হবে।
তিনি দাবি জানিয়ে বলেন, তিস্তাসহ অভিন্ন ৫৪ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা পেতে জাতিসংঘে এটিকে তুলে ধরতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানাবো। জাতিংসঘকে সম্পৃক্ত করে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করুন। আমাদের দাবি প্রতিটি নদীর ন্যায্য হিস্যা আমাদের দিতে হবে। আমরা কোনো দয়া চাইছি না। আমাদের যেটা আইনগত ভাবে পাওনা সেটি আমরা চাই।
মুক্তিযোদ্ধা দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন দলের যুগ্ম-মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক কর্নেল (অব.) জয়নাল আবেদিন, সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান, মহিলা দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by