logo

শুক্রবার ২১ এপ্রিল ২০১৭,০৮ বৈশাখ ১৪২৪,২৩ রজব ১৪৩৮

শিরোনাম

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা জঙ্গি হতে পারে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
২১ এপ্রিল, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা কখনও জঙ্গি হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। শুক্রবার রাজধানীর উত্তরায় বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামি পার্টির আয়োজিত ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা কখনও জঙ্গি হতে পারে না। জঙ্গীরা আলেম ওলামাদের ব্যবহার করতে না পেরে বর্তমানে ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থীদের টার্গেট করে জঙ্গিবাদে ব্যবহার করছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, জঙ্গীরা শুধু মানুষ হত্যা নয়, নিজেদেরকেও উড়িয়ে দিচ্ছে। এরা কারা, এদের আশ্রয় প্রশ্রয়দাতা কারা তা দেখা উচিত। বাংলাদেশের মানুষ ধর্মভীরু কিন্তু ধর্মান্ধ নয়।

অনুষ্ঠানে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে আওয়ামী লীগের কোনো বৈঠক হয়নি, বৈঠক হয়েছে কওমি মাদ্রাসা বোর্ডের সঙ্গে। পত্রপত্রিকায় সাংবাদিকরা লেখালেখি করছে যে আ. লীগ হেফাজতের সঙ্গে বৈঠক করেছে। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ভুল। প্রধামনন্ত্রীর ডাকে সবাই সম্মিলিতভাবে কওমি মাদ্রাসা বোর্ডের সাথে বৈঠক হয়েছে।`

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, কওমী মাদ্রসা জঙ্গি, সন্ত্রাস সৃষ্টি করে না। যারা জঙ্গি তারা ভুল শিক্ষা থেকে বিপথগামী হয়। কওমী মাদ্রাসা মূলত ইসলামের শিক্ষা আলো ছড়ায়।

ইউনাইটেড ইসলামি পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মাওলানা ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনসহ অনান্যরা বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, ১১ এপ্রিল রাতে গণভবনে আলেমদের এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমতুল্য ডিগ্রি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার ঘোষণা দেন। এর দুই দিন পর ১৩ এপ্রিল রাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করে দাওরায়ে হাদিসকে আরবি সাহিত্য ও ইসলামী শিক্ষায় মাস্টার্সের সমমান দেয়। এরপর থেকে দেশের মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে নানা বিকর্ত শুরু হয়।

এরই মধ্যে এক সংবাদ সম্মেলনে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, কওমি মাদ্রাসার উচ্চ শিক্ষা সনদের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে- তার মানে এই নয় যে, হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে আপস করা হয়েছে। দেশের বাস্তবতা মেনেই কওমি শিক্ষা সনদের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে।

কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমপর্যায়ের ডিগ্রি হিসেবে সরকারি স্বীকৃতি দেয়ার পর ইসলামপণ্থী দলগুলোতে মতপার্থক্য আরও স্পষ্ট হয়েছে। কওমি আলেমদের একটি পক্ষ মূল নীতির পরিপন্থি বলে আসছে।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by