logo

শনিবার ১২ আগস্ট ২০১৭, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৩৮

শিরোনাম

‘নাগরিকেরা হারিয়ে গেলে নির্বাচনে জেতা যাবে না’
১২ আগস্ট, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয় পরিচয়পত্রধারী নাগরিকেরা হারিয়ে গেলে এটা দিয়ে লাভ কি? এমন প্রশ্ন তুলেছেন বেলার প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান।

তার অভিযোগ, অপহরণ আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর কালচারের ভেতরে ঢুকে গেছে। ‌জাতীয় পরিচয়পত্রধারী নাগরিকেরা হারিয়ে যায়। কেউ বলতে পারে না। পুলিশ, র‌্যাব, সেনাবাহিনী বলতে পারবে না। এটা তো দিনের পর দিন হতে পারে না। এটা কোনো কথা? ন্যুনতম জবাবদিহিটুকু থাকবে না?

তিনি আরও বলেন, তারা সামনে গ্রেফতার করতে পারে, জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে, কেউ তো বাধা দিচ্ছে না, কিন্তু আমরা হারিয়ে যাব কেন? তাহলে এই পরিচয়পত্র দিয়ে আমাদের লাভটা কি হলো? এটা আমাদের সুরক্ষাকবচ। আর নাগরিকেরা হারিয়ে গেলে কি হবে, আগামী নির্বাচনে জেতা যাবে? কোনোভাবেই সম্ভব না।’

শনিবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে ‘আইনের শাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এ সভার আয়োজন করে মৌলিক অধিকার সুরক্ষা কমিটি।

এতে বক্তব্য দেন- মৌলিক অধিকার সুরক্ষা কমিটির অন্যতম সদস্য ও আইন ও সালিস কেন্দ্রের সাবেক নির্বাহী পরিচালক নূর খান লিটন, সভার সমন্বয়ক সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট জ্যোতির্ময় বড়ুয়াসহ অনেকে।

বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান বলেন, যদি একটা অপহরণের ঘটনাই হতো শেষ অপহরণের ঘটনা, তাহলে অবশ্যই যারা অপহৃত হয়েছেন তারা এবং তাদের পরিবার কথা বলতেন। একটা অপহরণের ঘটনা সারতে না সারতেই যদি দেখেন, সাতজন অপহরণ হয়েছেন, তাও আবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দিয়ে এবং এমন পর্যায় থেকে তাকে আপনি ফেলে দিতে পারবেন না।... এটা তো আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর কালচারের ভেতরে ঢুকে গেছে।’

এসময় বাংলাদেশের মানুষ একটা ‘বিপদে পড়ার কালচারের’ মধ্যে ঢুকে গেছে বলেও মন্তব্য করেন সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান। জনগণের অনাস্থা, অবিশ্বাসের জায়গাগুলো শনাক্ত করে, আস্থা ও বিশ্বাস ফিরিয়ে আনতে হবে বলে মনে করেন তিনি।

র‍্যাবের ব্যাপারেও চিন্তা করার প্রয়োজন আছে বলেও মনে করেন তিনি।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by