logo

মঙ্গলবার ১০ অক্টোবর ২০১৭, ২৬ আশ্বিন ১৪২৪, ১৯ মহররম ১৪৩৮

শিরোনাম

চিফ জাস্টিস সম্মানী ব্যক্তি, তাঁকে কেন গৃহবন্দি করতে যাব: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
১০ অক্টোবর, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে নোংরা রাজনীতি না করে পরামর্শ দিয়ে সরকারকে সহযোগিতা করতে বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও বেশ কয়েকটি উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের আয়োজনে ‘শিশুদের সুষম পুষ্টি নিশ্চিতকরণ’ শীর্ষক এক জাতীয় সেমিনারে এ আহ্বান জানান মন্ত্রী।

দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘আমাদের দেশে রাজনীতি, এমন সব রাজনীতি করে, নোংরা রাজনীতি। তাঁকে (প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা) নাকি গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে। আজকে বিএনপির এক নেতা বলেছেন। এটা কী সম্ভব বলেন তো দেখি। চিফ জাস্টিস, একজন সম্মানী ব্যক্তি, তাঁকে আমরা কেন গৃহবন্দি করতে যাব বলেন তো দেখি। কী কাজ আছে? তিনি তো একজন মর্যাদাশীল ব্যক্তি। তিনি তাঁর চিকিৎসা করাবেন, বিদেশে যাবেন, তাঁর ইচ্ছের ওপর নির্ভর করে এটা। এসব রাজনীতি না করে সুস্থ রাজনীতি করেন। আমাদের পাশে দাঁড়ান। এই রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে আসেন কথা বলেন, আমাদের সাহায্য করেন, পরামর্শ দেন। আমরা গ্রহণ করব। ভালো পরামর্শ দিলে কেন গ্রহণ করব না বলেন?’

নিজের বক্তব্যে মন্ত্রী আরো জানান, ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত শিশুদের পুষ্টি নিশ্চিত করতে সরকার সব রকমের পদক্ষেপ নিয়েছে। মিয়ানমার থেকে আসা প্রায় আড়াই লাখ রোহিঙ্গা শিশুর টিকা ও পুষ্টি চাহিদা পূরণের চ্যালেঞ্জ বাস্তবায়নে সরকার এখন কাজ করছে বলেও জানান তিনি। এই কাজে সহযোগিতার জন্য আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থাগুলোকেও ধন্যবাদ জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

গত ২ অক্টোবর এক মাসের ছুটির আবেদন করেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। ছুটির কারণ হিসেবে তিনি ‘অসুস্থতা’র কথা উল্লেখ করেন। সেদিন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘দীর্ঘ এক মাস অবকাশ শেষে কোর্ট খোলার পর প্রথম দিন থেকেই তিনি ছুটিতে থাকবেন বলে জানিয়েছেন। তাঁর অবর্তমানে আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি আবদুল ওয়াহহাব মিঞা দায়িত্ব পালন করবেন।’

এরপর থেকে বিএনপি একাধিক নেতা অভিযোগ করেন, প্রধান বিচারপতিকে গৃহবন্দি করেছে সরকার। তাঁকে জোর করে ছুটিতে পাঠাচ্ছে।

এর আগে গত ১০ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রধান বিচারপতি দেশের বাইরে ছুটিতে ছিলেন। ২৩ সেপ্টেম্বর তিনি দেশে ফেরেন।

প্রসঙ্গত, বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে নিতে করা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায় গত ১ আগস্ট প্রকাশের পর থেকে মন্ত্রী-এমপিদের কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েন প্রধান বিচারপতি। জাতীয় সংসদেও তাঁর সমালোচনা করা হয়।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by