logo

সোমবার ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৮ কার্তিক ১৪২৪, ২ সফর ১৪৩৯

শিরোনাম

বাংলাদেশে রোহিঙ্গা এসেছে ৬ লক্ষাধিক : আইওএম
২৩ অক্টোবর, ২০১৭
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মিয়ানমারের সহিংসতার পর থেকে এ পর্যন্ত ৬ লাখ ৩ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা আইওএম রোববার এ কথা জানিয়েছে।

সংস্থাটি জানান, গত এক সপ্তাহে ১৪ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশ সীমান্ত পাড়ি দিয়ে কুতুপালংসহ বিভিন্ন ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে। মিয়ানমারে গেলো আগস্টে নতুন করে সহিংসতা শুরুর পর এ মাসের শুরুর দিকে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ কিছুটা কম হলেও গেলো এক সপ্তাহে তা আবার বেড়েছে।

বাংলাদেশে আশ্রিত ১৪ হাজার রোহিঙ্গা শিশু অপুষ্টির কারণে মৃত্যু ঝুঁকিতে আছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

এদিকে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের মধ্যে দুই লাখের সব দায়িত্ব নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে তুরস্ক। রোববার সচিবালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ডেভ্রিম ওজতুর্ক এ সহায়তার আশ্বাস দেন।

কক্সবাজারের কুতুপালং ক্যাম্পের ‘টার্কিস জোনে’ রোহিঙ্গাদের জন্য ৫০ হাজার গৃহ নির্মাণ, খাওয়ার ব্যবস্থা ছাড়াও শৌচাগার, টিউবওয়েল স্থাপন ও জ্বালানির ব্যবস্থা করবে দেশটি।

রোববার বৈঠক শেষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, আগে তারা (তুরস্ক) এক লাখ লোকের ২৪ হাজার ঘর করে দিতে চেয়েছিলেন। এখন বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা ছয় লাখ ছাড়িয়েছে। এজন্য তুরস্কের রাষ্ট্রদূতের কাছে নতুন করে সাহায্যের জন্য হাত বাড়িয়েছি।

তিনি বলেন, তুরস্ক আমাদের আশ্বস্ত করেছেন এক লাখ লোকের সঙ্গে আরো এক লাখ লোক প্রায় ২ লাখ লোকের ঘর করার জন্য চিন্তা-ভাবনা করছেন। এক লাখ লোকের ঘর হয়ে যাবে, আরো এক লাখের যে প্রস্তাব দিয়েছি তা তাদের সরকারের সঙ্গে আলোচনা করবেন। ইনশাআল্লাহ এটাও আমরা হয়তো পেয়ে যাব।

তিনি আরো বলেন, যেখানে তারা দুই লাখ লোকের ৫০ হাজার শেড করবেন, সেখানে এরই মধ্যে তারা চার থেকে সাড়ে ৪ হাজার অস্থায়ী তাঁবু করেছেন। তাদের খাওয়া ও অন্যান্য নাগরিক সুবিধাগুলো তারা দিয়ে যাচ্ছেন। তুরস্কের সহযোগিতায় হচ্ছে এজন্য জায়গাটার নাম দেয়া হয়েছে ‘টার্কিস জোন’।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by