logo

বুধবার ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৫ সফর ১৪৩৯

শিরোনাম

‘তিনি রোহিঙ্গাদের দেখতে, না বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন’
১৫ নভেম্বর, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজারে খালেদা জিয়ার হর্ষোৎফুল্ল এবং বর্ণাঢ্য শতাধিক মোটর গাড়ির শোভাযাত্রা, ঢোল এবং হাতি জনগণকে বিভ্রান্তিতে ফেলে দেয়। তিনি রোহিঙ্গাদের দুর্দশা দেখতে যাচ্ছেন, না কোনো বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন। এটি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর দুর্দশা পরিদর্শনের নামে উৎসবমুখর বিলাসবহুল সফর। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ (বুধবার) সরকারি দলের সদস্য ফজিলাতুন্নেসা বাপ্পীর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী সংসদকে এসব কথা বলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বেগম জিয়ার মন্তব্য- ‘সরকার রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে ফেরত প্রদান এবং ত্রাণকার্য পরিচালনায় ব্যর্থ’ বলে মন্তব্যেরও কঠোর সমালোচনা করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, খালেদা জিয়ার কক্সবাজার সফর ছিল তার পার্টির একটি শোডাউন এবং তারা সেটাতেই মনোযোগী ছিলেন।

তিনি বলেন, ঐতিহাসিকভাবেই মানুষের দুর্দশায় পাশে দাঁড়ানোতে বিএনপি’র অতীত রেকর্ড নেই। ১৯৯১ সালে বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের আগমনের সময় বিএনপি সরকারে থাকলেও আওয়ামী লীগই আগে কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল।

শেখ হাসিনা বলেন, মানুষের জন্য দরদ থেকেই আওয়ামী লীগ সবসময় দুর্গতদের পাশে দাাঁড়িয়ে এসেছে। কারণ আওয়ামী লীগের রাজনীতিটাই জনগণের জন্য। যা সম্পূর্ণই বিএনপি-জামায়াতের থেকে ভিন্ন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি নির্বাচন বানচাল করতে, সরকার উৎখাতে, আন্দোলন গড়ে তোলায় এমনকি আদালতের মাধ্যমে ক্যান্টনমেন্টে তার বাড়িটা ধরে রাখাতেও ফেল করেছেন। কাজেই তিনি যে, সরকারের ব্যর্থতা দেখবেন সেটাই স্বাভাবিক।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এ পর্যন্ত ৫ লাখ ২৭ হাজার ৫৯৭ জন রোহিঙ্গা শরণার্থী রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়েছে এবং তাদের ছবিসহ পরিচয়পত্র প্রদান করা হয়েছে।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by