logo

বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০১৭, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৬ সফর ১৪৩৯

শিরোনাম

ভুয়া চিকিৎসক রাজন দাসকে গ্রেফতারে সময় পেল পুলিশ
১৬ নভেম্বর, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রসূতির পেটে গজ রেখে অপারেশন শেষ করার জন্য অভিযুক্ত ভুয়া চিকিৎসক রাজন দাসকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশকে ফের সময় দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ রাজনকে গ্রেফতারে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দেন।

এদিন পটুয়াখালীর বাউফল থানার ওসি মনিরুজ্জামান আদালতে জানান, ভুয়া চিকিৎসক রাজনকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এর পর আদালত রাজনকে গ্রেফতারের জন্য নতুন করে আগামী ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দেন।

এদিন তাকে আদালতে হাজির করতে প্রয়োজন হলে এলিট ফোর্সসহ অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনীর সাহায্য নিতে বলা হয় আদেশে।

উল্লেখ্য, পেটে গজ রেখে অপারেশন করা ওই প্রসূতির নাম মাকসুদা। বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার বিলবিলাস গ্রামে। স্বামীর নাম রাসেল সরদার।

গত মার্চে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে মাকসুদা একটি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। এর পর চিকিৎসকরা তার পেটে গজ রেখে সেলাই করে দেন। সাড়ে তিন মাস পর ফের অস্ত্রোপচার করে ওই গজ বের করা হয়।

গত ২২ জুলাই একটি জাতীয় দৈনিকে ‘সাড়ে তিন মাস পর পেট থেকে বের হল গজ!’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. শহীদউল্লাহ আদালতের নজরে আনেন।

পর দিন পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন ও বরিশাল মেডিকেলের গাইনি বিভাগের প্রধানসহ তিনজনকে তলব করেন বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by