logo

বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সমঝোতা চুক্তি চূড়ান্ত পর্যায়ে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
২৩ নভেম্বর, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমারের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সমঝোতা চুক্তি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

মিয়ানমারের রাজধানী নেপিডোতে বৈঠক শেষে তিনি এই কথা জানিয়েছেন।

তবে এদিন কোনো চুক্তি বা সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়নি। আগামীকাল তা স্বাক্ষর হতে পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

আজ বুধবার দুপুর দেড়টা থেকে শুরু হওয়া সাড়ে তিন ঘণ্টার এই বৈঠকে রোহিঙ্গা ছাড়াও দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে।

আলোচনায় অংশ নেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলরের দপ্তর বিষয়কমন্ত্রী টিন্ট সোয়ে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব শহিদুল হক এবং ইয়াঙ্গুনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাইফুর রহমান।

আগামীকাল মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর বৈঠকের কথা রয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফেরাতে বাংলাদেশের সঙ্গে চলমান আলোচনায় চলতি সপ্তাহেই ‘নিরাপদ ও স্বেচ্ছায় প্রত্যাবাসন’ শীর্ষক একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের আশা প্রকাশ করেন অং সাং সু চি।

ওই সময় তিনি জানান, রোহিঙ্গাদের ফেরাতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে বুধবার এবং বৃহস্পতিবারও আলোচনা চলবে। ফিরতে চাওয়া রোহিঙ্গাদের আবেদন প্রক্রিয়া ঠিক করতে দুই দেশের কর্মকর্তারা গেলো মাস থেকেই আলোচনা চালাচ্ছেন।

এদিন এক বিবৃতিতে রোহিঙ্গা মুসলমান জনগোষ্ঠীর ওপর দীর্ঘদিন ধরে মিয়ানমার সরকারের চালানো বৈষম্য ও নিপীড়নকে ‘অমানবিক জাতিগত বৈষম্য’ বলে অভিহিত করে যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

গেলো ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা নিধন অভিযান শুরুর পর প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা ইতোমধ্যে ৬ লাখ ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। রোহিঙ্গাদের পালিয়ে আসার এ ধারা অব্যাহত থাকলে শরণার্থীর সংখ্যা ১০ লাখে পৌঁছাতে পারে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by