logo

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০ ফাল্গুন ১৪২৪, ৫ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে শিক্ষা অধিদপ্তরের ২৯ কর্মকর্তাকে বদলি
২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রশ্নফাঁসসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক অধিদপ্তর এবং ঢাকা শিক্ষাবোর্ড ও এনসিটিবির ২৯ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার মাউশির আটজন, ঢাকা বোর্ডের ছয় জন, এনসিটিবির নয়জন, পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের একজন এবং ঢাকার বাইরের কয়েকটি শিক্ষা বোর্ডের ছয় কর্মকর্তাকে বদলির আদেশ জারি করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ।

বদলি হওয়া কর্মকর্তারা হলেন মাউশির পরিচালক (মনিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশন উইং) মো. সেলিম, উপ-পরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) মো. ফজলে এলাহী, উপ-পরিচালক (কলেজ-২) মো. মেসবাহ উদ্দিন সরকার, উপ-পরিচালক এস এম কামাল উদ্দিন, মাউশির উপ-পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম সিদ্দিকি, সহকারী পরিচালক (কলেজ-৪) জাকির হোসেন, উপপরিচালক (প্রশিক্ষণ) খ ম রাশেদুল হাসান এবং সহকারী পরিচালক (কলেজ-২) মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক আশফাকুস সালেহীন, বিদ্যালয় পরিদর্শক এ টি এম মঈনুল হোসেন, উপসচিব মোহাম্মদ নাজমুল হক, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাসুদা বেগম, কলেজ উপ-পরিদর্শক মন্মথ রঞ্জন বাড়ৈ (শিক্ষামন্ত্রীর সাবেক এপিএস), উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অদ্বৈত কুমার রায়, এনসিটিবির সম্পাদক দিলরুবা আহমেদ, বিশেষজ্ঞ ফাতেমা নাসিমা আক্তার, বিশেষজ্ঞ মনিরা বেগম, বিশেষজ্ঞ শাহীনারা বেগম, এনসিটিবির গবেষণা কর্মকর্তা মারুফা বেগম, মো. হাবিবুল্লাহ ও মোহাম্মদ শাহ আলম, উৎপাদন নিয়ন্ত্রক মো. আব্দুল মজিদ, এবং পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী শিক্ষা পরিদর্শক মো. কাওসার হোসেন।

উল্লেখ্য, চলমান এসএসসি পরীক্ষার বেশিরভাগ বিষয়ের প্রশ্নপত্র ফাঁস, শিক্ষামন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা এবং মন্ত্রণালয়ের উচ্চমানসহকারীর ঘুষের টাকাসহ ধরা পড়ার ঘটনায় দেশজুড়ে সমালোচনা ঝড়ে উঠে।

এমনকি জাতীয় সংসদে শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগেরও দাবি উঠেছে। এমন অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে এই বদলির প্রজ্ঞাপন জারি করা হলো।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by