logo

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ৬ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

নির্বাচন আগামী ডিসেম্বরেই হবে: তোফায়েল
২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
ভোলা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি
আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচন ঠেকানোর ক্ষমতা কারো নেই।

শুক্রবার দুপুরে ভোলা সদরের তুলাতুলি বাজারে ধনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত নতুন সদস্য সংগ্রহ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, নির্বাচন হবে বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের অধীনে আর সে নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। এ নিয়ে বিএনপি যত দাবি-দাওয়া উত্থাপন করুক কোনো লাভ নেই। বরং আরও ক্ষতি হবে তাদের।

তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এতিমের টাকা আত্মসাৎ করায় বিচারক তার বিরুদ্ধে রায় দিয়েছেন। এ নিয়ে আমাদের কিছু বলার নেই। আর আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে কারও আন্দোলন-সংগ্রাম করা উচিতও নয়।

বিএনপির আন্দোলন ন্যায়সংগত নয় উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপির আন্দোলন ন্যায়সংগত নয়। আর ন্যায়সংগত ও মানুষের আন্দোলন হলে তা সফল হয়। যেমন আমরা পাকিস্তান সরকারে সময় আসাদ, মতিউর ও মকবুলকে হত্যা করায় আন্দোলন করেছি। সে সময় লাখ লাখ মানুষ আন্দোলন ও গণঅভুথ্যানে শামিল হয়। ফলে আইয়ুব খান ক্ষমতা ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়।

তিনি বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচনের পর বিএনপি সারা দেশে সন্ত্রাসের রাজ্য কায়েম করেছে। তারা মসজিদের মুয়াজ্জিনকে গুলি করে হত্যা ও বিভিন্ন জায়গায় মা-বোনের ইজ্জত নষ্ট করেছে। এমনকি গর্ববতী মাকেও তারা রেহাই দেয়নি। আবার যদি একবার সুযোগ পায় তাহলে কি করবে তা কেউ চিন্তা করতেও পারবে না।

আওয়ামী লীগের এ জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, খালেদা জিয়া ২০১৩ সালে আগুন সন্ত্রাস করেছে, ২০১৪ সালে নির্বাচন বানচাল করতে চারজন প্রিসাইডিং অফিসার ও ২৪ জন পুলিশ মেরে ফেলেছে। ২০১৫ সালে ৯৩ দিন হরতাল অবরোধ করে দেশের অর্থনীতি পঙ্গু করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু কিছুতেই তারা সফল হয়নি। বিএনপি যদি আবার সেই তাণ্ডব চালায় তাহলে তাদেরই ক্ষতি হবে।

সমাবেশে ধনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হারুন অর রশিদ হাওলাদারের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, এনামুল হক আরজু, সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশারেফ হোসেন, জেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম গোলদার, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. ইউনুছ, সদর উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, ধনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমদাদ হোসেন কবির প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by