logo

রোববার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪, ৮ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

সরকার পরিবর্তন হলে নীতি পরিবর্তন হওয়া দুঃখজনক
২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
সরকার পরিবর্তন হলে এ দেশে অনেক ক্ষেত্রেই নীতির পরিবর্তন হয়, যা দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষা ক্ষেত্রেও তেমন ঘটনা ঘটেছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়তে শিক্ষাকে যুগোপযোগী করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে বর্তমান সরকার।

আজ রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) প্রবর্তিত 'প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক' প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা।

সরকারপ্রধান বলেন, ‘আমাদের দেশের সবচেয়ে দুর্ভাগ্যের বিষয় হচ্ছে সময় সময় সরকার পরিবর্তন হলে অনেক সময় আগের সরকার কেন করেছে, সেজন্য অনেক সময় এগুলি বাদ দিয়ে দেওয়া হয়। এটাই হচ্ছে আমাদের জন্য দুর্ভাগ্য।’

দেশের সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়া শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয় প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক। ২০০৫ সালে থেকে এই পদক দেওয়া হচ্ছে ইউজিসির পক্ষ থেকে। ২০১৫ ও ২০১৬—দুই বছরে এই পদক পেয়েছেন ২৬৫ জন শিক্ষার্থী। রোববার তাঁদের মধ্যে এই পদক বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

পরে দেওয়া বক্তব্যের শুরুতেই বিডিআর বিদ্রোহে নিহতদের গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন শেখ হাসিনা। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার অনেক ক্ষেত্রের মতো শিক্ষা খাতেও আগের মেয়াদে তাঁর সরকারের নেওয়া বেশ কিছু পদক্ষেপ বাতিল করেছিল বলে আক্ষেপ করেন প্রধানমন্ত্রী।

উচ্চশিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বায়নের এই যুগে বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে হলে মানসম্পন্ন ও সময়োপযোগী উচ্চশিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। তিনি বলেন, ‘মানসম্পন্ন শিক্ষা এবং গবেষণার মাধ্যমে অর্জিত জ্ঞান, দক্ষতা এবং উদ্ভাবনী শক্তিই পারে সব প্রতিকূলতা এবং প্রতিবন্ধকতাকে কাটিয়ে সভ্যতাকে উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যেতে।’

২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসেই আবারও বিজ্ঞান শিক্ষার হার বাড়াতে পদক্ষেপের পাশাপাশি গবেষণার ওপর জোর দিতে বরাদ্দ বাড়ানো হয় বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, সাক্ষরতার হার বাড়াতেও নেওয়া হয়েছে নানান পদক্ষেপ। যার ফলে সাক্ষরতার হার এখন ৭৩ শতাংশ ছাড়িয়েছে।

শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশে বৃত্তি, উপবৃত্তি, এমনকি মায়েদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা দেওয়ার মতো কার্যক্রমও বর্তমান সরকার হাতে নিয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। শিক্ষার্থীরা পাস করে বেরোনোর পর কর্মসংস্থানের জন্য বেসরকারি খাতকে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by