logo

শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮, ৭ বৈশাখ ১৪২৫, ৩ শাবান ১৪৩৯

প্রবাসীদের ভোটার করার পক্ষে আ’লীগ বিএনপি ও জাতীয় পার্টি
২০ এপ্রিল, ২০১৮
নউজ ডেস্ক
প্রবাসে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগরিকদের ভোটার করার পক্ষে মত দিয়েছেন আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির প্রতিনিধি ও বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতরা। তবে তারা প্রথম পর্যায়ে পরীক্ষামূলকভাবে স্বল্প পরিসরে ভোটার করার উদ্যোগ নিতে নির্বাচন কমিশনকে সুপারিশ করেন।

যাদের মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) রয়েছে তাদের অগ্রাধিকার দেয়ার কথা বলেন। প্রবাসীদের ভোটার করতে বাংলাদেশের মিশনগুলো সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেয়।

তবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার খান মোহাম্মদ নুরুল হুদা মনে করেন, প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিকদের ভোটার করতে দ্বৈত নাগরিকত্ব অন্যতম প্রধান সমস্যা। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে প্রবাসে ভোটগ্রহণের ব্যবস্থা করা সম্ভব হবে না।

পোস্টাল ব্যালটে ভোট দেয়ার বিষয়ে প্রচারণা চালানো হবে বলেও জানান তিনি। রাজধানীর একটি হোটেলে বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন আয়োজিত ‘প্রবাসী বাংলাদেশিদের জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান ও ভোটাধিকার প্রয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর অর্থবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান, বিএনপির স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম খান, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদেরসহ চার নির্বাচন কমিশনার, যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, মালয়েশিয়া ও সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত, সাবেক নির্বাচন কমিশনার, সাবেক রাষ্ট্রদূত, পররাষ্ট্র ও প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

প্রবাসী ভোটার নিবন্ধন, জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান এবং ভোটাধিকার প্রয়োগ সংক্রান্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন এনআইডি উইংয়ের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম।

মূল প্রবন্ধে তিনি বলেন, প্রবাসীদের ভোটার করার নীতিগত সিদ্ধান্ত রয়েছে। কিন্তু এ নিয়ে সুবিধা-অসুবিধা বিস্তারিত পরীক্ষা নিরীক্ষাপূর্বক একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর এ নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে।

সেমিনারে নির্বাচন কমিশনসহ বেশ কয়েকজন আলোচক দ্বৈত নাগরিকদের ভোটদান ও ভোটাধিকার প্রয়োগ নিয়ে উদ্বেগ জানান। এমনকি প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) খান মোহাম্মদ নুরুল হুদা তার উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিকদের ভোটার করতে দ্বৈত নাগরিকত্ব প্রধান সমস্যা।

সিইসি বলেন, বর্তমানে প্রক্সি ভোট ও পোস্টাল ভোটের নিয়ম আছে। এর মাধ্যমে প্রবাসীরা ভোট দিতে পারেন। আগামী নির্বাচনের আগে এসব পদ্ধতি নিয়ে প্রচার করা হবে।

ড. মসিউর রহমান বলেন, প্রবাসীদের ভোটার করতে এনআইডি উইং ও এমআরপি যৌথভাবে কাজ করতে পারে। ভোটের বিষয়টি জটিল হলেও এনআইডি দেয়ার প্রক্রিয়া নেয়া যেতে পারে। তবে দ্বৈত নাগরিকদের ভোটার করায় সমস্যা রয়েছে। পোস্টাল ব্যালটে ভোট দেয়ার ব্যবস্থাও বেশ কঠিন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্র খুবই প্রয়োজন। প্রচলিত আইন অনুযায়ী একজন নাগরিক তিনি দেশে থাকুন আর বিদেশে থাকুন এটি ছাড়া চলা অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার জন্য যত পদক্ষেপ নেয়া দরকার, তাতে আমার সম্মতি আছে। বিদেশের মিশনগুলোতে পাসপোর্ট দেয়ার সময়ে প্রবাসীদের ভোটার করা হলে ভোগান্তি কম হতো বলেও মন্তব্য করেন এ বিএনপি নেতা। তুলনামূলক কম প্রবাসী রয়েছেন এমন এলাকাকে প্রথম ধাপে বেছে নিয়ে ভোটার করার পরামর্শ দেন তিনি।

জিএম কাদের বলেন, প্রবাসীদের ভোটার করতে ইসি যেসব উদ্যোগ নিয়েছে তাকে স্বাগত জানাই। একাদশ সংসদ নির্বাচনের জন্য হয়তো প্রবাসীদের ভোটার করা যাবে না। তবে এরপরেই বাস্তবতা বিবেচনা করে পদক্ষেপ নেয়া যায়।

তিনি বলেন, যারা দ্বৈত নাগরিক তাদের নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার সুযোগ নেই, এটা দেয়াও ঠিক হবে না। এতে সংসদসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান অন্য দেশের নাগরিকদের হাতে চলে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। যারা শুধু বাংলাদেশের নাগরিক শুধু তাদেরই পাবলিক অফিস হোল্ড করা দরকার।

সাবেক নির্বাচন কমিশনার এম সাখাওয়াত হোসেন তাদের সময়কার নেয়া উদ্যোগের কথা তুলে ধরে বলেন, আমরা উদ্যোগ শুরু করেছিলাম। বর্তমান কমিশনও তাদের মেয়াদে প্রবাসীদের বিষয়ে কাজ করতে পারলে ভালো হবে। তাড়াহুড়া করলে জাতীয় নির্বাচনের আগে তা সম্ভব হবে না। তবে কাজটা যেন চলমান থাকে।

সৌদি আরবে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ বলেন, প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র খুবই দরকার। তারা যখন দেশে আসেন তখন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলাসহ সব কাজেই এটি প্রয়োজন হয়। এ কারণে প্রবাসীরা আমাদের (মিশনের কর্মকর্তাদের) কাছে জাতীয় পরিচয়পত্র চায়।

জরুরিভাবে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া দরকার। তিনি বলেন, আমাদের পাসপোর্ট দেয়ার সক্ষমতা ও দক্ষতা আছে। প্রবাসীদের ভোটার করা ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে আমরা সহযোগিতা করতে পারব।

ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান শিকদার বলেন, যাদের মেশিনে পাঠযোগ্য (এমআর) পাসপোর্ট রয়েছে তাদেরকে নির্দ্বিধায় ভোটার করা যেতে পারে। কিন্তু যাদের এমআরপি নেই তাদেরকে ভোটার করার ক্ষেত্রে যাচাই-বাছাই করা দরকার।

তিনি বলেন, প্রবাসীরা প্রবাসে ভোটাধিকার পাবেন কিনা তা রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয়। যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশ মিশনের ডেপুটি চিফ মাহবুব হাসান সালেহ জানান, দ্বৈত ভোটারদের এনআইডি দেয়ার সুযোগ নেই। সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শমসের মবিন চৌধুরীও প্রবাসীদের ভোটার করার বিষয়ে মত দেন।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেন, প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার জন্য কয়েকটি চ্যালেঞ্জ রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে জনবল ও যন্ত্রপাতি সংকট এবং বৈধ নাগরিক নিশ্চিতকরণ।

সুপারিশমালায় তিনি বলেন, আমরা মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপ থেকে কাজটি শুরু করতে পারি। প্রবাসীদের ভোটাধিকার বিষয়ে তিনি বলেন, এটি আরেকটি চ্যালেঞ্জ। কারণ বিদেশে প্রচুর বাংলাদেশি অবস্থান করছে।

সেমিনারে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি ড. ইয়ামীন আকবরী জানান, ১৯৭৬ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত মোট ১৫৯টি দেশে ১ কোটি ১৬ লাখ ৬ হাজার ১৭১ কর্মী প্রবাসে কর্মসংস্থানের সুযোগ পেয়েছে।

এর মধ্যে সৌদি আরবে ৩০ ভাগ, আরব আমিরাতে ২০ ভাগ, ওমানে ১১ ভাগ, মালয়েশিয়ায় ৫ ভাগ বাকিরা অন্যান্য দেশে রয়েছেন।

তিনি জানান, বিদেশে কর্মীর প্রবৃদ্ধি বছরে ৩০-৩৫ শতাংশ। ২০১৭ সালে এ প্রবৃদ্ধির সংখ্যা ছিল ৩৩ শতাংশ। গড়ে প্রতিদিন ৪ হাজার কর্মী বিদেশ যায়। গত জানুয়ারি মাসে প্রবাসীদের কাছ থেকে রেমিটেন্স এসেছে এক হাজার ৩৭৯ দশমিক ৭৯ কোটি ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিপোর্ট অনুযায়ী প্রবাসী আয় স্থিতি ৩৩ হাজার ৩৬৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার; যা গত ১০ বছরে সবচেয়ে বেশি। এ কর্মকর্তা প্রবাসীদের ভোটার করার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে ইসিকে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ভোটার হতে অনেকেই নাম পরিবর্তন করে থাকে। সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। বাংলা ভাষায় কথা বললেই বাংলাদেশি নয়, এ বিষয়ে যাচাই করতে হবে।

সেমিনারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি নাহিদা রহমান সুমনা বলেন, প্রতিটি বাংলাদেশ মিশনের রাষ্ট্রদূত বা হাইকমিশনারের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদানে টিম গঠন করা যেতে পারে। পাসপোর্ট কার্যক্রমের মতো নির্বাচন কমিশন ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কনস্যুলার উইংয়ের সমন্বয়ে কারিগরি সেল গঠন করা যেতে পারে।

যেসব দূতাবাসে পাসপোর্ট ও ভিসা উইং রয়েছে সেসব মিশনে ওই উইংয়ের কর্মচারীরা জাতীয় পরিচয়পত্র সেবা প্রদানে মুখ্য ভূমিকা পালন করতে পারে।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by