logo

বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮, ১২ বৈশাখ ১৪২৫, ০৮ শাবান ১৪৩৯

নির্বাচন নয়, নেতাদের পছন্দেই নতুন নেতৃত্ব
ঢাকা দক্ষিণ ছাত্রলীগের সম্মেলন আজ, উত্তরের কাল
২৫ এপ্রিল, ২০১৮
নিউজ ডেস্ক
নতুন নেতৃত্ব পাচ্ছে আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ দুটি ইউনিট ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ। আজ বুধবার ঢাকা মহানগর দক্ষিণ এবং আগামীকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সম্মেলন শেষে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হবে। এ জন্য ব্যাপক লবিং-তদবির করছেন পদপ্রত্যাশীরা। আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে ছাত্রলীগের এ ইউনিট দুটির সম্মেলন নতুন মাত্রা পেয়েছে।

তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবারও সম্মেলন শেষে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের পছন্দ অনুযায়ী (সিলেকশনের মাধ্যমে) প্রেস রিলিজের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব ঘোষণা করা হবে। রেকর্ড বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সম্মেলন হলেও ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের এই দুটি শাখায় নেতৃত্ব নির্বাচিত হয় ‘সিলেকশন পদ্ধতি’তে। ২০১০ সালের ২৭ জুলাই এ শাখা দুটির সম্মেলন হলেও ২৯ জুলাই সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব ঘোষণা দেয়া হয়। ২০১৫ সালের ২৮ মে ও ৩০ মে যথাক্রমে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন শেষে ৩০ মে রাতে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রে সম্মেলনের দিন নতুন নেতৃত্ব ঘোষণার বিষয়ে কোনো বাধ্যবাধকতা না থাকায় অর্পিত ক্ষমতাবলে কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সুবিধাজনক সময়ে নতুন নেতৃত্ব ঘোষণা করে থাকেন।

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, ছাত্রলীগের জেলা শাখার মেয়াদ এক বছর। সে হিসাবে মেয়াদোত্তীর্ণের প্রায় দুই বছর পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে শাখা দুটির সম্মেলন। এ ছাড়া গঠনতন্ত্রের ৫নং ধারার ‘ক’ অনুচ্ছেদে সদস্যদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ২৭ বছর। তবে এবারের কেন্দ্রীয় ও মহানগর সম্মেলনে সর্বোচ্চ বয়সসীমা ২৯ বছরই হবে বলে জানিয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন।

মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি মাকসুদ রানা মিঠু যুগান্তরকে বলেন, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ইলেকশন এবং সিলেকশন সব ধরনের প্রস্তুতি আমাদের থাকবে। সংগঠনের হাইকমান্ড যেভাবে বলবে সেভাবেই হবে। মিঠু আরও বলেন, যেহেতু এর আগের ৩টি সম্মেলনে বয়স ২৯ ধরেই সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে, তাই এবারও ২৯ ধরেই ফরম বিক্রি হয়েছে। মহানগর দক্ষিণে মোট ৩০টি ইউনিট রয়েছে। এর মধ্যে ২৪টিতে কমিটি আছে। মহানগর কমিটির নেতাদের বাইরে প্রতিটি ইউনিট থেকে ২৫ জন করে ভোটার নির্বাচন করা হয়েছে। এবার প্রতিটি ফরমের মূল্য ছিল ৫ হাজার টাকা। মোট মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে ১৪৬টি, যার মধ্যে সভাপতি পদে ৬৬টি এবং সাধারণ সম্পাদক ৮০টি। মহানগর উত্তরের প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও ছাত্রলীগের সহসভাপতি নুসরাত জাহান নূপুর যুগান্তরকে জানান, এ শাখায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোট ১০৭টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে।

এদিকে নেতৃত্ব নির্বাচনে ‘সিলেকশন পদ্ধতি’কে গুরুত্ব দেয়া হলে সংগঠনের দুঃসময়ে ত্যাগী নেতাকর্মীরা উপেক্ষিত হতে পারেন- এমন আশঙ্কা নেতাকর্মীদের বড় একটি অংশের। তাদের বক্তব্য, সিলেকশন পদ্ধতিতে নেতা নির্বাচন করলে জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের সুযোগ থাকে না। নেতারা তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী পছন্দের ব্যক্তিকে পদে বসায়। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে সংগঠনে। এ ছাড়া ব্যক্তিগত পছন্দ থেকে বিভিন্ন সময়ে নানা অপকর্মে জড়িতরাও নেতৃত্বে চলে আসে। এবার যারা মনোনয়ন ফরম কিনেছেন তাদের মধ্যেও অনেকের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক কার্যক্রমে অদক্ষতা, কর্মীদের সঙ্গে দূরত্ব, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, অতীতে ছাত্রলীগবিরোধী অবস্থানসহ নানা অভিযোগ রয়েছে বলেও জানান তারা।

সম্মেলনের বিষয়ে মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি বায়েজিদ আহমেদ খান যুগান্তরকে বলেন, দ্বিতীয় অধিবেশনে ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচনের পরিকল্পনা নিয়ে সামনে এগোচ্ছি। তিনি নেতৃত্ব নির্বাচনের যোগ্যতা নিয়ে বলেন, যেহেতু মহানগর ছাত্রলীগের নেতা নির্বাচন করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ, সেখানে আমাদের পরামর্শ গ্রহণ করা হয়। এ ক্ষেত্রে আমার পরামর্শ হল- মেধাবী ছাত্র, ভালো সংগঠক, পারিবারিক রাজনৈতিক অবস্থান, ভালো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে নেতৃত্ব নির্বাচনে গুরুত্ব দেয়া হবে।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ যুগান্তরকে বলেন, নিয়মিত ও মেধাবী ছাত্র, দুঃসময়ে যারা প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে কাজ করেছে, ত্যাগী, অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত না অর্থাৎ ভালো ছেলে- এমন যারা আছেন, তারাই নেতৃত্বে আসবেন। নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে তিনি বলেন, আমাদের সব ধরনের (ইলেকশন ও সিলেকশন) প্রস্তুতি থাকবে। তবে যদি সবার পরামর্শ অনুযায়ী সমন্বয়ের মাধ্যমে হয়, তখন নির্বাচন না-ও হতে পারে। সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন যুগান্তরকে বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে দেশরতœ শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন এমন নিবেদিতপ্রাণ কর্মীরাই নেতৃত্বে আসবে। যারা নেতৃত্বে আসবে তারা হবে মেধাবী ও নিয়মিত ছাত্র। কোনো অপরাধী নেতৃত্বে আসবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, ক্লিন ইমেজের অধিকারীরাই নেতৃত্বে আসবে। ছাত্রলীগে অপরাধীদের জায়গা কখনোই ছিল না, আগামীতেও থাকবে না।

নেতৃত্ব দৌড়ে এগিয়ে যারা : ধানমণ্ডি, তেজগাঁও, গুলশান-বনানী, বৃহত্তর মিরপুর নিয়ে গঠিত ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগে নেতৃত্বের দৌড়ে এগিয়ে আছেন উত্তরের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান হৃদয়, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হাসান সম্রাট, পলিটেকনিক ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল মোল্লা, নগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহমেদ, সহসভাপতি মো. ইব্রাহীম, সহসভাপতি হোসেন রাব্বি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন, সহসভাপতি মাহবুবুল আলম সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক সালমান খান প্রান্ত, আদাবর থানার সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ মাহমুদ, তেজগাঁও থানার সভাপতি হেলাল রহমান প্রমুখ।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগে এগিয়ে আছেন দক্ষিণের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, কবি নজরুল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান মোহন ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হাওলাদার, নগর দক্ষিণের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়ালীউল্লাহ সৌরভ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুরাদ মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবির হাসান আরিফ, সোহরাওয়ার্দী কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ খান শুভ, মতিঝিল থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান, সিদ্ধেশ্বরী কলেজের সভাপতি আশ্রাফুল হাসান সরকার, কদমতলী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ মারুফ, নগরের সাংগঠনিক সম্পাদক এম সাইফুল ইসলাম সাইফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল করিম সাগর, নগরের সহসভাপতি আরমান হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জোবায়ের আহমেদ, সহসম্পাদক বারেক হোসেন আপন, সহসভাপতি নজরুল ইসলাম অর্ণব, গোলাম রব্বানী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুরাদ মোবারক, সাহিত্যবিষয়ক উপ-সম্পাদক ইসতিয়াক আহমেদ শরীফ, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রসেনজিৎ সিংহ, সবুজবাগ থানা ছাত্রলীগের সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম রাসেল, নগরের (দ.)যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন তপু, পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ নাজমুল হোসাইন মিরন, দক্ষিণের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান অনিক, স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ ফয়সাল, সূত্রাপুর থানার সভাপতি মিরাজ হোসেন।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by