logo

বুধবার, ১৬ মে ২০১৮, ০২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৯ শাবান ১৪৩৯

আগামী অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৮ ভাগ ছাড়িয়ে যাবে
১৬ মে, ২০১৮
পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, আগামী অর্থবছরেই মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশ ছাড়িয়ে যাবে। যদিও প্রস্তাবিত বাজেটে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হচ্ছে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ।

তবে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) আকার আড়াই লাখ কোটি টাকার মতো হবে। কেননা ওই অর্থবছরে পদ্মা সেতু, মেট্রো রেল, মাতারবাড়ী বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ মেগা প্রকল্পগুলোর কাজ অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

তখন প্রকল্পগুলোয় ব্যাপক অর্থ পরিশোধ করতে হবে। তবে ২০২০-২১ অর্থবছর থেকে এডিপির আকার কমতে শুরু করবে। কেননা তখন বড় প্রকল্প আর তেমন থাকবে না। শুধু রক্ষণাবেক্ষণ খাতে বরাদ্দ রাখতে হবে। আগামী বাজেটে বার্ষিক গড় মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৫০ শতাংশের মধ্যে রাখার লক্ষ্য স্থির করা হয়েছে। সোমবার শেরেবাংলা নগরে নিজ কার্যালয়ে তাৎক্ষণিক ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের কারণে আগামী অর্থবছরের এডিপি বাস্তবায়ন বাধাগ্রস্ত হবে- এ ধারণা থেকে আমাদের বের হয়ে আসতে হবে। ১০ বছরে আমাদের সক্ষমতা আমরা বাড়িয়েছি। এটা অব্যাহত থাকবে।

তাছাড়া ‘রাজনৈতিক বিবেচনায়’ প্রকল্প নেয়ার যে সমালোচনা বিভিন্ন জন করেন, সেটাও অযৌক্তিক। সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার শেষ বছর অর্থাৎ ২০১৯-২০ অর্থবছরে ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের কথা বলা হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, এক অর্থবছর আগেই টার্গেট ছাড়িয়ে যাবে। বিনিয়োগবিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমাদের জিডিপিতে বিনিয়োগের পরিমাণ এখন ৩১ ভাগের বেশি, যা খুবই ভালো। বিনিয়োগে প্রধান সমস্যা ছিল জ্বালানি। আমরা সে সমস্যা কাটিয়ে উঠেছি। আগামী বাজেটে কর্পোরেট করহারও কমিয়ে আনা হবে। বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ এখন আদর্শ দেশ। এখন আমরা সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগে মনোযোগ দেব। আগামী দুই অর্থবছরের আমরা এফডিআইয়ের পরিামাণ ছয় থেকে সাত বিলিয়ন ডলারে নিয়ে যেতে চাই।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by