logo

রোববার, ২২ জুলাই ২০১৮, ৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ৮ জিলকদ ১৪৩৯

তিন দিন ব্যাপী
ডিসি সম্মেলন, আসতে পারে যেসব নতুন প্রস্তাব
২২ জুলাই, ২০১৮
নিউজ ডেস্ক
আগামী মঙ্গলবার (২৪ জুলাই) থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শুরু হচ্ছে তিন দিন ব্যাপী ডিসি সম্মেলন। এখানে ৩৩৯ ধরনের প্রস্তাব উঠছে। সূত্র জানায়, বর্তমানে কারাগারে আটক বন্দিদের ৭০ শতাংশ বন্দি মাদকের মামলার সঙ্গে সম্পৃক্ত। মামলা নিষ্পত্তিতে অনেক সময় সাক্ষী হাজির করা সম্ভব হয় না। সে ক্ষেত্রে মাদকের মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে পৃথক মাদক আদালত গঠন এবং তদন্ত ও নিষ্পত্তির সময়সীমা নির্দিষ্ট করে দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন ডিসিরা।

প্রস্তুাবগুলোর মধ্যে থাকছে, আদালত অবমাননার মামলায় ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি চান জেলা প্রশাসকরা (ডিসি)। বাল্যবিয়ে ও বাবা-মায়ের ভরণ-পোষণ আইন দুটি মোবাইল কোর্ট আইনের তফসিলভুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন তারা।কমার্শিয়াল ইম্পর্টেন্ট পারসনের (সিআইপি) আদলে এগ্রিকালচার ইম্পর্টেন্ট পারসন (এআইপি) প্রবর্তনের প্রস্তাব করেছেন তারা। পদোন্নতির ক্ষেত্রে বিভিন্ন সংস্থা থেকে প্রতিবেদন নেওয়ার বাধ্যবাধকতা শিথিল করার প্রস্তাব করেছেন তারা। তারা প্রশাসনের গোপনীয় প্রতিবেদন গ্রহণের পক্ষে মত দিয়েছেন। দুইয়ের অধিক সন্তান গ্রহণ করা দম্পতিকে সরকারি সুবিধার বাইরে রাখার প্রস্তাব করেছেন তারা।

সূত্র জানায়, দণ্ডবিধি ১৮৬০-এর ২৯০ এবং বঙ্গীয় প্রকাশ্য জুয়া আইন ১৯৬৭-এর ৪ ধারায় প্রকাশ্যে জুয়া খেলার অপরাধে জরিমানার পরিমাণ খুবই কম। বর্তমানে জুয়া খেলা গণউপদ্রবে পরিণত হয়েছে। এ খেলা বন্ধে ডিসিরা জরিমানার পরিমাণ বাড়ানোর প্রস্তাব করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সরকারি সম্পত্তি রক্ষার স্বার্থে মামলা হলেও অনেক সময় আদালত সরকারি কর্মকর্তাদের আদালতে সশরীরে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলেন। সে ক্ষেত্রে তারা ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি চান। তাদের পরিবর্তে সরকারি কৌঁসুলিদের হাজিরা দিয়ে আদালতে ব্যাখ্যা দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন ডিসিরা।

ব্যবসা-বাণিজ্য ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য প্রতি বছর সিআইপি নির্বাচন করা হয়। কৃষির মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ খাতে এ ধরনের কোনো স্বীকৃতি এখনও চালু হয়নি। এগ্রিকালচার ইম্পর্টেন্ট পারসন (এআইপি) স্বীকৃতি দেওয়া হলে কৃষক উৎসাহ পাবেন। দেশের তরুণ সমাজও কৃষি খাতে কাজ করতে উৎসাহিত হবে এবং দেশের খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। বৃদ্ধ বাবা-মায়ের সেবাযত এবং তাদের অসহায়ত্ব থেকে মুক্ত করার জন্য ছেলে সন্তানদের দায়দায়িত্ব নেওয়ার বাধ্যবাধকতায় আনার জন্য প্রণীত বাবা-মায়ের ভরণ-পোষণ আইন ২০১৩ মোবাইল কোর্ট আইন ২০০৯-এর তফসিলভুক্ত করার প্রস্তাব করেছেন একজন ডিসি।

অনুরূপভাবে বাল্যবিয়ে নিরোধ আইন-২০১৭ মোবাইল কোর্ট আইনের তফসিলভুক্ত না হওয়ায় মাঠপর্যায়ে বাল্যবিয়ে রোধে ভ্রাম্যমাণ আদালত সফলভাবে পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে না। এতে বাল্যবিয়ের প্রবণতা বেড়ে যাচ্ছে।

অর্পিত সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলা পরিচালনার ব্যয় এবং আপিল দায়েরর জন্য কোনো বরাদ্দ ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে না দেওয়ায় কৌঁসুলিরা আপিল দায়ের করতে পারছেন না। ফলে সরকারি স্বার্থ বিঘিত হচ্ছে। সরকারের হাজার হাজার কোটি টাকা মূল্যের সম্পত্তি বেহাত হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে অর্পিত সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলা পরিচালনা এবং আপিল দায়েরের জন্য অর্থ বরাদ্দের প্রস্তাব করেছেন ডিসিরা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের জন্য বয়স নির্ধারণের প্রস্তাবও আসে ডিসিদের কাছ থেকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের যথেচ্ছ ব্যবহারের ফলে কিশোর-কিশোরীদের নৈতিকতা ও মূল্যবোধ অবক্ষয় হচ্ছে। স্বাভাবিক মানসিক ও শারীরিক বৃদ্ধি ব্যাহত হচ্ছে। সঠিক সামাজিকতায় বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

হিন্দুধর্মাবলম্বীদের দেবোত্তর সম্পত্তি হস্তান্তরের কোনো আইন না থাকায় সৃষ্ট জটিলতা নিরসন এবং ওয়াকফ সম্পত্তি ও দেবোত্তর সম্পত্তি নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওপর ন্যস্ত করার প্রস্তাব করেছেন তারা। দুইয়ের অধিক সন্তান নেওয়া পরিবারকে সরকারি সুবিধার বাইরে রাখার প্রস্তাবও এসেছে মাঠ প্রশাসন থেকে। অবসরে যাওয়া কর্মকর্তাদের জন্য অবসর লাউঞ্জ স্থাপনের প্রস্তাব দিয়েছেন তারা।

সাবেক মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব, সিনিয়র সচিবসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা অনেক কাজে সচিবালয়ে আসেন। কিন্তু তাদের জন্য বসার কোনো ব্যবস্থা না থাকায় বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। সে ক্ষেত্রে সচিবালয়ের ভেতরে তাদের জন্য একটি লাউঞ্জ স্থাপন করা যেতে পারে। এছাড়া মাঠ প্রশাসনে কর্মরত প্রশাসন ক্যাডার কর্মকর্তাদের সচিবালয়ে প্রবেশের ক্ষেত্রে হয়রানি নিরসনের দাবি জানিয়েছেন তারা।

এছাড়া বর্তমানে হলফনামা, শপথ ও ঘোষণাপত্র সম্পাদনের কাজ ডিসি অফিস থেকে সম্পাদন হয়। সে ক্ষেত্রে অস্পষ্টতা রয়েছে। বিচার বিভাগ পৃথক হওয়ার পর এ কাজটি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটদের করার কথা। কিন্তু আগের ধারাবাহিকতায় এ কাজটি এখনও প্রশাসনিক ম্যাজিস্ট্রেটরাই করছেন। বিষয়টি সুস্পষ্ট করার প্রস্তাব করেছেন ডিসিরা।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by