logo

রোববার, ২২ জুলাই ২০১৮, ৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ৮ জিলকদ ১৪৩৯

খালেদা জিয়ার জ্বর কমছেই না, ফের ইউনাইটেডে নেয়ার দাবি রিজভীর
২২ জুলাই, ২০১৮
নিউজ ডেস্ক
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এখনও গুরুতর অসুস্থ। তার জ্বর ও শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা কোনোভাবেই কমছে না। মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে রয়েছেন, এমন অবস্থায় খালেদা জিয়াকে দ্রুত ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তির দাবি জানিয়েছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। রোববার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন রিজভী।

তিনি বলেন, গতকাল কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে কথা হয়। তিনি খুব বেশি অসুস্থতার কারণে দোতলা থেকে নিচে নামতেই পারছেন না। তার হাঁটাচলা করতে কষ্ট হয়। কারাগারে অবর্ণনীয় কষ্টে রাখার জন্যই তার অসুস্থতা দিনকে দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। রিজভী বলেন, বারবার ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসার দাবি করে হলেও শারীরিকভাবে যন্ত্রণা দিতেই তাকে কারাগারের লাল দেয়ালের মধ্যে আটকিয়ে রাখা হয়েছে। সরকারের এই নির্দয় আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান রিজভী।

রাজশাহী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট একেএম মতিউর রহমান মন্টুকে আটকের বিষয়ে রিজভী বলেন, গভীর রাতে তার রাজশাহীর বাসা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ আমাদের নেতা অ্যাডভোকেট একেএম মতিউর রহমান মন্টুকে গ্রেফতার করলেও বিষয়টি স্বীকার করছে না।

তিনি বলেন, নির্বাচন ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বারবার বিবেকহীন এই নিষ্ঠুর আচরণের পুনরাবৃত্তি বিএনপি এবং দেশের মানুষের মনে আরও গভীর উদ্বেগ ও শঙ্কা চিরস্থায়ী রূপ নিয়েছে। আমি এর গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, আসন্ন তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন গত দুতিন দিনে জনসমর্থনহীন নৌকা মার্কার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, স্থানীয় প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা খুলনা-গাজীপুরের সন্ত্রাসের আবহে নতুন মডেলের ভোট জালিয়াতির আসল রূপে আত্মপ্রকাশ করেছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের রাত-দিন গণগ্রেফতার শুরু করেছে তারা।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনের দিন যতই এগিয়ে আসছে ধানের শীষের আবেদন আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। আওয়ামী চেতনায় সাজানো প্রশাসন নির্বাচনী এলাকাগুলোতে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর ইউরোপে মধ্যযুগীয় ‘ডাইনি শিকার’-এর ন্যায় অভিযানে নেমেছে। খুলনা ও গাজীপুরের স্টাইল গণতন্ত্র ও সুষ্ঠু নির্বাচনকে ক্রমাগত হত্যা করার স্টাইল। সেই স্টাইল ৩০ জুলাই তিনটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এখনও বলবৎ রয়েছে।

রিজভী বলেন, ক্ষমতাসীন দল বেআইনিভাবে জয়ী হতে চাচ্ছে বলেই বেপরোয়া গ্রেফতার, গণগ্রেফতারসহ এক আতঙ্কজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হয়েছে। সরকারদলীয় প্রার্থীদের জেতাতে তিন সিটি কর্পোরেশন এলাকাতেই এ গ্রেফতার অভিযান চালানো হচ্ছে।

সর্বশেষ খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by