logo

শনিবার ২৭ মে ২০১৭, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ৩০ শাবান ১৪৩৮

শিরোনাম

বনানীতে ছাত্রী ধর্ষণ: আদালতে জবানবন্দি দিলেন সাফাত ও সাদমান
১৮ মে, ২০১৭
নিজস্ব প্রতিবেদক:
ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদ ও সাদমান সাকিফ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাদের আদালতে হাজির করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইসমত আরা এমি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন জানালে ঢাকা মহানগর হাকিম আহসান হাবিব সাফাতের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। অন্য হাকিম ছাব্বির ইয়াসির আহসান চৌধুরী সাদমানের জবানবন্দি রেকর্ড করেন।
গত বুধবার অভিযুক্ত সাদমান সাকিফের রিমান্ড শেষ হয়েছে। আজ সাফাতের রিমান্ড শেষ হচ্ছে ।
একই মামলার আরেক অভিযুক্ত নাঈমকে ৭ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। আজ বিকেলে ঢাকা মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ জামান এ আদেশ দেন।
রাজধানীর বনানীতে রেইনট্রি হোটেলে দুই তরুণীকে ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার সাফাত আহমেদের ৬ দিন ও সাদমান সাকিফকে ৫ দিন রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।গত শুক্রবার বেলা ৩টার পর মুখ্য মহানগর হাকিম রায়হানুল ইসলামের আদালতে তাদের হাজির করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের (ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার) পরিদর্শক ইসমত আরা এমি ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। পরে আদালত সাদমানের ৬ দিন ও সাফিকের ৫ দিন রিমান্ড মুঞ্জুর করেন।
সিলেট মহানগর পুলিশ সংবাদ সম্মেলনে জানায়, পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে ঢাকার গোয়েন্দা দল সাফাত ও তার সহযোগীদের সম্পর্কে তথ্য দেয়। এর ভিত্তিতে গোয়েন্দা পুলিশ ও সিলেট জেলা মহানগর পুলিশ যৌথ অভিযান চালায়।
গত ৬ মে বনানী থানায় মামলা দায়ের করেন দুই তরুণী। মামলার এজাহারে বলা হয়, ২৮ মার্চ পূর্বপরিচিত সাফাত আহমেদ ও নাঈম আশরাফ ওই দুই তরুণীকে জন্মদিনের দাওয়াত দেয়। এরপর তাদের বনানীর ‘কে’ ব্লকের ২৭ নম্বর সড়কের ৪৯ নম্বরে রেইনট্রি নামের হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। অভিযোগ করা হয়েছে, সেখানে দুই তরুণীকে হোটেলের একটি কক্ষে আটকে রেখে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ধর্ষণ করে সাফাত ও নাঈম। সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল এসব ভিডিও করে। ধর্ষণ মামলার আসামিরা হলেন, সাফাত আহমদ, নাঈম আশরাফ, সাদমান সাকিফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ।

সর্বশেষ খবর

লিড নিউজ এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by