logo

বৃহস্পতিবার, ১৪ জুন ২০১৮, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৮ রমজান ১৪৩৯

সিএমএইচকেও না বলা খালেদা জিয়ার উচিত হবে না :কাদের
এবার ঈদযাত্রা স্বস্তিকর
১৪ জুন, ২০১৮
নিউজ ডেস্ক
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিত্সা নিতে অনীহা প্রকাশের পর সরকারের তরফ থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) সেবা দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে। চিকিত্সা নিতে চাইলে সিএমএইচকেও প্রত্যাখ্যান করা খালেদা জিয়ার উচিত হবে না। গতকাল বুধবার বেলা ১১টার দিকে গাবতলী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালের নিরাপত্তা পরিস্থিতি ও ভিজিল্যান্স টিমের কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরো বলেন, ‘অন্য যে কোনো সময়ের চেয়ে এবারের ঈদযাত্রা স্বস্তিকর। সারা দেশের রাস্তার অবস্থা গত কয়েক বছরের তুলনায় অনেক ভালো।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সিএমএইচ হচ্ছে দেশের সবচেয়ে ভালো হাসপাতাল, এর চেয়ে ভালো চিকিত্সা আর কোথায় আছে? তিনি বিএসএমএমইউতে চিকিত্সা নেবেন না, তাই আমরা সিএমএইচের কথা বলেছি। তিনি একটা বড় দলের চেয়ারপারসন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী, তাই আমরা তাকে দেশের সবচেয়ে ভালো যেখানে চিকিত্সা ব্যবস্থা, সেখানে নিয়ে যাওয়ার কথা বলছি। বিএনপি যদি সত্যিই খালেদা জিয়ার চিকিত্সা নিয়ে আন্তরিক থাকে, তবে তাকে সিএমএইচে নেওয়ার পক্ষে মত দেবে। অবশ্য যদি তার চিকিত্সা নিয়ে দলটি রাজনীতি করতে চায়, তবে ভিন্ন কথা। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা (আওয়ামী লীগ প্রতিনিধি দল) ভারত গিয়েছিলাম তিস্তা ও রোহিঙ্গা সংকটসহ জাতীয় সমস্যা নিয়ে কথা বলার জন্য; কিন্তু বিএনপি ভারত গিয়েছে নালিশ করতে।

বিএনপি দেশে এবং দেশের বাইরে সব জায়গায় শুধু নালিশ করে বেড়াচ্ছে অভিযোগ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, নালিশ করতে করতে দূতাবাসগুলোকে তটস্থ করে ফেলেছে তারা। দেশের নির্বাচন ও রাজনীতি নিয়ে নালিশ করতে বিএনপি ভারত গিয়েছিল। এটা কোনো রাজনৈতিক দলের পরিচয় হতে পারে না। নালিশ করে রেজাল্ট কী হবে, সবাই জানে। আমাদের দেশের রাজনীতিতে কোনো বিদেশি শক্তির হস্তক্ষেপ করার সুযোগও নেই। আর ভারত যদি কেবল আমাদেরই বন্ধু হয়ে থাকে, তাহলে কেন আমরা ২০০১ সালের নির্বাচনে হেরেছি। কেন ২১ বছর ক্ষমতায় আসতে পারিনি আমরা। আগামী জাতীয় নির্বাচনেও কোনো বিদেশি শক্তির হস্তক্ষেপ করার কোনো সুযোগ নেই।

আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন জোটের প্রার্থী মনোনয়ন প্রসঙ্গে কাদের বলেন, ঈদের পরে জোটগুলোর সঙ্গে বসে কে কোথায় প্রার্থী দেবে তা ঠিক করা হবে। আসন ভাগাভাগি নিয়ে জোট নিয়ে দলের কিছু কৌশল আছে। এসব ব্যাপারে কেউ যেন কোনো দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্য না রাখেন।

সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, আমি প্রত্যেকটি কাউন্টারে জিজ্ঞেস করেছি, তারা (কাউন্টার সংশ্লিষ্টরা) জানিয়েছেন, মহাসড়কে কোনো ধরনের যানজট এখনো পর্যন্ত নেই। সড়কে মাঠ প্রশাসন, হাইওয়ে পুলিশ-সবাই খুব তত্পর রয়েছে। তাই অতীতের যে কোনো সময়ের তুলনায় এবারের ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক। ঢাকা-উত্তরবঙ্গ, ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট কোথাও কোনো যানজট নেই। তিনি বলেন, ‘অতিবৃষ্টির কারণে প্রবল স্রোতে পাটুরিয়ায় ফেরি চলাচলের গতি কমে গেছে। যে কারণে দক্ষিণবঙ্গ রুটে একটু সমস্যা হচ্ছে।’

এর আগে মন্ত্রী গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখেন। এসময় তিনি বিআরটিসি, পুলিশ, সিটি করপোরেশন ও পরিবহন মালিক সমিতির সমন্বয়ে গঠিত ‘ভিজিলেন্স টিম’-এর সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন। কথা বলেন সাধারণ যাত্রীদের সঙ্গেও।

সর্বশেষ খবর

খবর এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by