logo

সোমবার ১৭ জুলাই ২০১৭,০২ শ্রাবন ১৪২৪, ২২ শাওয়াল ১৪৩৮

শিরোনাম

সমুদ্রের তলায় বিপুল ‘খাজানার’ সন্ধান
১৭ জুলাই, ২০১৭
আর্ন্তজাতিক ডেস্ক
বিপুল সামুদ্রিক সম্পদের হদিশ পেল জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া৷ এই সম্পদ কোনও হীরে-মোতি-জহরতের চেয়ে কম মূল্যবান নয়৷ এই সম্পদ আসলে মূল্যবান ধাতু ও খনিজ পদার্থ৷ ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের জলের তলায় লক্ষ লক্ষ টন মূল্যবান ধাতু ও খনিজ পদার্থের সন্ধান পেয়েছে জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার বিজ্ঞানীরা৷ কি কি ধাতু ও খনিজ পদার্থের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে? বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এখন‌ও পযর্ন্ত লাইম মাড, ফসফেট, ক্যালকারাস সেডিমেন্ট,হাইড্রোকার্বন এবং মাইক্রোনডিউলস ইত্যাদি মূল্যবান ধাতু ও খনিজ পদার্থের সন্ধান মিলেছে৷

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে আন্দামান-নিকোবর, চেন্নাই, ম্যাঙ্গালুরু ও মুন্নার অববাহিকায় সামুদ্রিক সম্পদের খোঁজ পায় বিজ্ঞানীরা৷ তিন বছর গবেষণা ও অনুসন্ধান চালিয়ে বিজ্ঞানীরা ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ১৮১০২৫ স্কোয়ার কিলোমিটার জায়গা জুড়ে দশ হাজার মিলিয়ন টন সামুদ্রিক সম্পদের হদিশ পায়৷ কোথায় কোথায় কি কি ধাতু ও খনিজ পদার্থের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে তার একটি তালিকা তৈরি করেছে জিএসআই৷ যেমন কারওয়ার, ম্যাঙ্গালুরু ও চেন্নাই উপকূলে ফসফেট, মুন্নার অববাহিকায় হাইড্রোকার্বন, আন্দামান সমুদ্রে কোবাল্ট সমৃদ্ধ ফেরোম্যাঙ্গানিজ, লাক্ষাদ্বীপ সমুদ্রের নীচে মাইক্রো-ম্যাঙ্গানিজ নডিউলসের খোঁজ পাওয়া গেছে৷

জিএসআইের সুপারিন্টেন্ডেন্ট আশিষ নাথ জানান,‘‘এই অভিযানে ‘সমুদ্র রত্নাকর’ ‘সমুদ্র কৌস্তভ’ ‘সমুদ্র সৌদিকামা’ নামে তিনটি জাহাজ নামানো হয়৷ এই অভিযানের প্রধান উদ্দেশ্য ছিল অনুকূল খনিজ পদার্থের সম্ভাব্য অঞ্চল চিহ্নিত করা এবং সামুদ্রিক খনিজ সম্পদের মূল্যায়ণ করা’’৷

সর্বশেষ খবর

খোলা হাওয়া এর আরো খবর

    আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

    Developed by