logo

বুধবার, ১৬ মে ২০১৮, ০২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৯ শাবান ১৪৩৯

নিয়ম মেনে আমদানি করা ছবি আগামী ঈদে মুক্তি পাবে?
১৬ মে, ২০১৮
ঈদে আটকে যেতে পারে ভারত থেকে আমদানি করা দুটি ছবি। হাইকোর্টে একটি আদেশ কার্যকর হলে আসন্ন ঈদে মুক্তির তালিকায় থাকা কলকাতার ছবি ‘ভাইজান এলো রে’ ও ‘সুলতান’ আটকে যেতে পারে।

অবশ্য ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির প্রযোজক ও কলকাতার এসকে মুভিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অশোক ধানুকা আশা করছেন, আগামী ঈদেই আমদানির মাধ্যমে ‘ভাইজান এলো রে’ ও ‘সুলতান’-দুটি ছবিই মুক্তি পাবে। তাঁর কথা, নিয়ম মেনেই ছবি দুটি আগামী ঈদে মুক্তি পাবে। কোনো সমস্যা হবে না।

৯ মে হাইকোর্টে নিপা এন্টারপ্রাইজের পক্ষে প্রযোজক সেলিনা বেগম বাংলাদেশের উৎসবের সময়ে বিদেশি ছবি মুক্তির ওপর স্থগিত চেয়ে রিট আবেদন করেন। রিট নম্বর ৬২২৯। রিট প্রসঙ্গে প্রযোজক সেলিনা বেগম বলেন, ‘দেশীয় চলচ্চিত্রের স্বার্থে ১৮টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবারের সঙ্গে একমত পোষণ করেই রিট করেছি আমি।’

১০ মে রিটকারীর পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী শফিক আহমেদ ও মাহবুব শফিক। সেদিনই হাইকোর্টের বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, দুর্গাপূজা, পয়লা বৈশাখে যৌথ প্রযোজনা ও আমদানি করা ছবি মুক্তির ওপর স্থগিতাদেশ দেন। পাশাপাশি আদালত যৌথ প্রযোজনা ও আমদানি করা ছবি বাংলাদেশের বিভিন্ন উৎসবে এদেশীয় প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি কেন অবৈধ হবে না, তা জানাতে বলেছেন। তথ্যসচিব, সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান ও তথ্য উপসচিবকে (চলচ্চিত্র) চার সপ্তাহের মধ্যে এর উত্তর দিতে হবে।

সুলতান ছবিতে বিদ্যা সিনহা মিম ও জিৎসুলতান ছবিতে বিদ্যা সিনহা মিম ও জিৎকলকাতার ‘ভাইজান এলো রে’ ছাড়াও শাকিব খানের এ দেশের দুটি ছবি ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া’ ও ‘সুপার হিরো’ আগামী ঈদে মুক্তির তালিকায় আছে।

জানা গেছে, রিটকারী প্রযোজক সেলিনা বেগম ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া’ ছবির প্রযোজক শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খানের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়। অভিযোগ আছে, তাঁকে ব্যবসায়িক সুবিধা দিতেই এই রিট করা হয়েছে।

তবে সেলিম খান বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘রিট করতে কাউকে আমি উৎসাহিত করিনি। সেলিনা বেগম আমার আত্মীয় কি না, সেটা বড় ব্যাপার নয়। তিনি একজন প্রযোজক হিসেবে রিট করেছেন। এটি তাঁর নিজের সিদ্ধান্ত। ঈদে শাকিবের ১০টি ছবি মুক্তি পেলেও আমার সমস্যা নেই। সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী ঈদে আমার ছবি মুক্তি দেব।’

এদিকে ঈদে আমদানির ছবি মুক্তির ওপর স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আবেদন করবেন কি না-জানতে চাইলে অশোক ধানুকা বলেন, ‘আমি আইন-আদালত কিছুই করছি না। যাঁদের করা দরকার, তাঁরা করছেন। তবে বিষয়টির সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত কোনো কিছু আগে বলা ঠিক হবে না।’

‘ভাইজান এলো রে’ ও ‘সুলতান’ ছবির প্রযোজক ও বাংলাদেশে ছবি দুটির আমদানিকারক সূত্রে জানা গেছে দুটি ছবিই আগামী ১৫ জুন কলকাতা এবং ঈদের দিন আমদানি করে বাংলাদেশের শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির কথা।

সর্বশেষ খবর

রুপালি সৈকত এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by