logo

শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৬ . ১০ মাঘ ১৪২২ . ১২ রবিউস সানি ১৪৩৭

শীতে কাঁপছে রংপুর
২৩ জানুয়ারি, ২০১৬
মেরিনা লাভলী, রংপুর
শীতে কাঁপছে রংপুর। মাঘের এক সপ্তাহ পেরুতেই শীতে কাবু হয়ে পড়েছে খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ। হঠাৎ করে শীত পরে যাওয়ায় কাবু হয়ে পড়েছে শিশুসহ বৃদ্ধরা। এরইমধ্যে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে ভিড় বাড়ছে শিশু ও বৃদ্ধদের। রোগীর সংখ্যা বাড়ছে ডাক্তারদের চেম্বারেও। রংপুর আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জানান, গতকাল শুক্রবার রংপুর ও আশপাশ এলাকায় সর্বনিম্ন তাপ ছিল ১৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তিনি জানান, তাপমাত্রা কিছুটা বেশি থাকলেও হিমেল হাওয়ার কারণে কনকনে ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। এ ধরনের আবহাওয়া আরো কয়েকদিন বিরাজ করবে বলে তিনি জানান। দুদিন থেকে সূর্যের দেখা মিলছে কম। চলছে শৈত্য প্রবাহ। বিশেষ করে চরাঞ্চল ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। চলছে সূর্যের লুকোচুরি খেলা। কোথাও বা সূর্য়ের আলো দেখা গেলে তাও ছিল খুব অল্প সময়ের জন্য। গতকাল দিনের বেশিরভাগ সময় আকাশ কুয়াশাচ্ছন্ন ছিল। সেই সাথে হিমেল হাওয়ায় কনকনে শীত। বিরুপ আবহাওয়ায় জনজীবন কিছুটা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। নগরীর কেলাবন্দ এলাকার আলী মিয়া ও রফিকুল ইসলাম জানান,  ঠান্ডায় কাজ করতে যেতে পারছি না। খরকুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছি। রংপুর নগরীর আলমনগর বসতির ভ্যান চালক হাকিম মিয়া জানান, দুদিন থেকে ঠান্ডার কারণে রিকশা চালাতে পারছি না। জমানো টাকা খরচ করে খাচ্ছি। এদিকে, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, এ হাসপাতালে ঠান্ডা জনিত শ্বাস কষ্ট, জ্বর কাশিসহ নানা রোগের কারণে শিশু ও বৃদ্ধরা আসছে বেশি। একই অবস্থা ক্লিনিকগুলোতেও। এছাড়া শিশু ডাক্তারদের চেম্বারেও শিশু রোগীদের ভিড় লক্ষ করা গেছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. বরকতুল্লাহ  সাংবাদিকদের জানান, শীতজনিত রোগে এখনও সেভাবে রোগী ভর্তি হয়নি। রোগীর জন্য পর্যাপ্ত প্রস্তুতি রয়েছে বলে তিনি জানান।

সর্বশেষ খবর

সারাবাংলা এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by