logo

রোববার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ . ১৬ ফাল্গুন ১৪২২ . ১৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭

গৃহবধূ তানিয়ার ওপর এসিড নিক্ষেপকারীদের গ্রেফতার দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মানববন্ধন
২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : গৃহবধূ তানিয়া আক্তারের উপর এসিড হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন -আজকের পত্রিকা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তানিয়া আক্তার (৩০) নামে দুই সন্তানের জননী, এক গৃহবধূর ওপর এসিড নিক্ষেপকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে প্রথম আলো ট্রাস্টের উদ্যোগে বন্ধুসভার সদস্যরা।

গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন চলা কালে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হারুন অর রশিদের সভাপতিত্বে  বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সদস্য সচিব রিয়াজ উদ্দিন জামি, সাংবাদিক পিযুষ কান্তি আচার্য, মোশারফ হোসেন, ইব্রাহিম খান সাদাত, জেলা নাগরিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক রতন কান্তি দত্ত, জেলা খেলাঘরের সাধারণ সম্পাদক নীহার রঞ্জন সরকার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ইউনাইটে কলেজের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হারুন অর রশিদ, বন্ধুসভার সভাপতি অভিজিৎ রায়, সদস্যসে জুতি আক্তার ও শারমিন আক্তার প্রমুখ। মানববন্ধনে বক্তারা অবিলম্বে গৃহবধূ তানিয়ার উপর এসিড হামলাকারীদেরগ্রেপ্তারের দাবি জানান। মানববন্ধনে বন্ধুসভার সদস্যসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুই শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেন।

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে পৌর এলাকার দক্ষিণমৌড়াইলে স্বামীর বাড়িতেই তানিয়ার আক্তার নামে ওই গৃহবধূকে এসিডে ঝলসে দেয় দুর্বৃত্তরা। এসিডে তানিয়ার শরীরের প্রায় ৩৫ ভাগ ঝলসে গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ গৃহবধূর স্বামী নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে।

আহত অবস্থায় তানিয়াকে প্রথমে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা বার্ন ইউনিটে প্রেরণ করে।

জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ফায়েজুর রহমান জানান, ক্যামিকেল বার্নের কারণে গৃহবধূর গলা, বাম হাতসহ মুখম-লের ৩২ থেকে ৩৫ শতাংশ (এক তৃতীয়াংশ) ঝলসে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় গৃহবধূর মামাগোলাম মহিউদ্দিন বাদি হয়ে তানিয়ার স্বামী নজরুল ইসলাম, সহযোগী কামরুল ইসলাম ও রায়হান মিয়ার নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো কজনের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ গৃহবধূর স্বামী নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারেপ্রেরণ করে।

এদিকে তানিয়ার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মামলার আসামি রায়হান মিয়া দক্ষিণ মৌড়াইলের প্রভাবশালী পরিবারের সন্তান। তার পিতা মো. জামাল উদ্দিন খাঁন পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক। মামলা দায়েরের পর থেকেই রায়হান মিয়ার পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা তুলে নিতে তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধামকি ও চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে। রায়হান মিয়া এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছে না।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মঈনুর রহমান বলেন, ইতিমধ্যেই আমরা তানিয়ার স্বামী নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছি। বাকি আসামিরা পালিয়ে গেছে। তাদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সর্বশেষ খবর

সারাবাংলা এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by