logo

বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৮ জমাদিউল-আউয়াল ১৪৩৯

প্রতিবন্ধী বালককে পেটানোর পর হাতে গুলি করলো পুলিশ
১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
রাঙামাটি প্রতিনিধি
রাঙামাটিতে ছাত্রলীগ ও পুলিশের ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার সময় পুলিশের হামলার শিকার হয়েছে বিপ্লব মজুমদার নামে এক প্রতিবন্ধী বালক। তাকে লাঠি দিয়ে বেদম প্রহারের পর হাতে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছে বলে দাবি করেছে সেই বালক।

গেলো সোমবার সন্ধ্যায় শহরের কলেজ গেইট এলাকায় এই হামলার শিকার হয় সে। বর্তমানে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বিপ্লব মজুমদার।

বিপ্লব মজুমদারের বাম পায়ের অর্ধেকাংশ নেই। তার বাড়ি কাউখালী উপজেলার ঘাগড়ায়।

আহত প্রতিবন্ধী বালক বিপ্লব মজুমদার জানান, রাঙামাটিতে কাজ সেরে গ্রামের বাড়ি ঘাগড়া যাওয়ার সময় গণ্ডগোল শুরু হয়।

এসময় সে কলেজ গেইট এলাকার একটি দোকানে আশ্রয় নেয়। কিন্তু দোকানদার তাকে দোকান থেকে বের করে দেয়। সেখান থেকে বের হয়ে চলে যাওয়ার সময় পেছন থেকে পুলিশ এসে লাঠি দিয়ে তাকে পেটাতে থাকে।

এসময় সে নিজেকে প্রতিবন্ধী বলে জানায়। তখন ওই পুলিশ সদস্য বলে ‘তুই প্রতিবন্ধী হলে এখানে আসছস কেনো’। কোনোমতে স্ক্র্যাচে ভর করে কিছুদূর এগিয়ে যায় সে। এসময় পেছন থেকে রাবার বুলেট ছোঁড়ে পুলিশ। এতে বিপ্লবের ডান হাতের আঙ্গুলে বুলেট লাগে। আর পুলিশ এসে আবারো পেটাতে থাকে। পরে পার্শ্ববর্তী মসজিদের ইমাম তাকে মসজিদের ভেতর নিয়ে যায়।

অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে অজ্ঞান হয়ে পড়ে বিপ্লব। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

হাসপাতালের বিছানায় যন্ত্রণায় কাতর বিপ্লব আরও জানায়, আমাকে না মারার জন্য পথচারীরা অনুরোধ করলেও পুলিশ তাদের কথা শুনেনি। আমাকে তারা লাঠি দিয়ে পিটিয়েছে। হাতের আঙ্গুল থেকে বুলেট বের করেছে ডাক্তাররা।

এই ব্যাপারে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সত্যজিৎ বড়ুয়া জানান, পুলিশ জেনে-শুনে কোনো প্রতিবন্ধীকে আঘাত করবে না। তারপরেও বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ নেয়া হবে।

সর্বশেষ খবর

সারাবাংলা এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by