logo

মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ৩০ কার্তিক ১৪২৪, ২৪ সফর ১৪৩৯

শিরোনাম

রোহিঙ্গা নিধনের অভিযোগ অস্বীকার মিয়ানমার সেনাবাহিনীর
১৪ নভেম্বর, ২০১৭
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর জাতিগত নিধনের অভ্যন্তরীণ তদন্তের প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। এতে সেনাবাহিনীর প্রতি যে অভিযোগ তা সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করা হয়েছে। এমন তথ্য দিয়ে খবর প্রকাশ করেছে বিবিসি, দ্য টেলিগ্রাফ।

এ তদন্ত প্রতিবেদনে দেখা গেছে, বার্মিজ সেনাবাহিনী কর্তৃক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে হত্যা করা, তাদের গ্রাম জ্বালিয়ে দেয়া, নারীদের ধর্ষণ এবং সম্পত্তি লুটপাট করার অভিযোগ আমলে নেয়নি তারা।

যদিও জাতিসংঘ সাম্প্রতিক জঘন্যতম এ বর্বর নিধনযজ্ঞকে ‘পাঠ্যপুস্তকের উদাহরণ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত’ বলে অভিহিত করেছিল। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের পরে এ প্রথম কোনো তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে মিয়ানমার। তবে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, প্রতিবেদনটির মাধ্যমে সেনাবাহিনী এক ধরনের ‘হোয়াইটওয়াশ’র চেষ্টা চালিয়েছে।

ফেসবুকে পোস্টের একটি বিবৃতিতে মিয়ানমারের সামরিক কর্তৃপক্ষ জানায়, ‘তারা কয়েক কয়েক হাজার গ্রামবাসীর সাক্ষাৎকার নিয়েছেন যারা এ ধরনের কর্মকাণ্ডের কথা অস্বীকার করেছেন। একইসঙ্গে তারা সেনাবাহিনীর সঙ্গে ঐক্যমত পোষণ করেছেন। তাদের মতে-‘নির্দোষ গ্রামবাসীদের’ ওপর গুলি চালানো হয়নি, নারীদের ওপর কোনো ধরনের ‘যৌন নির্যাতন এবং ধর্ষণ’ করা হয়নি, কোনো গ্রামবাসীকে হত্যা করা হয়নি, গ্রামবাসীদের কাছ থেকে কোনো রৌপ্য, স্বর্ণ, যানবাহন বা গবাদি পশু চুরি যায়নি, মসজিদে আগুন লাগানো হয়নি, কাউকে হুমকি ধামকি দিয়ে বের করে দেয়া হয়নি এবং কোনো বাড়িঘরে ঢুকে অগ্নিসংযোগও করা হয়নি।’

এ প্রতিবেদনে রোহিঙ্গা সম্প্রদায়কে বাঙালি হিসেবে উল্লেখ করে তাদেরকে সন্ত্রাসী হিসেবে দাবি করা হয়। ঘরবাড়ি অগ্নিসংযোগের জন্য তাদেরকে দায়ী করা হয়। বলা হয়, এসব সন্ত্রাসীদের ভয়ে হাজার হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে গেছে এবং তাদের অনেককে হত্যা করা হয়েছে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘এর মাধ্যমে সামরিক বাহিনী পরিষ্কার করে দিয়েছে যে জবাবদিহিতা নিশ্চতকরণের ব্যাপারে তাদের কোনো ধরনের ইঙ্গিত নেই।’ তিনি আরো বলেছেন, ‘এখন এ ধৃষ্টতাপূর্ণ নির্যাতনের বিচার নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোর পদক্ষেপ নেয়া উচিত।’

সর্বশেষ খবর

বিশেষ সংবাদ এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by