logo

সোমবার, ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ . ১৯ মাঘ ১৪২২ . ২১ রবিউস সানি ১৪৩৭

হাল ফ্যাশনে ব্যাগ
০১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
জুতার সঙ্গে কিংবা পোশাকের কোনো একটা রঙের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগের ব্যবহার এখন তেমন একটা দেখা যায় না। কন্ট্রাস্ট রঙের ব্যাগের ব্যবহারই এখন ফ্যাশন। বাজারে পাওয়া যাচ্ছে নানান ডিজাইন আর আকৃতির ব্যাগ। ফ্যাশনের অনুষঙ্গ এসব বাহারি ব্যবহারের খোঁজখবর জানাচ্ছেন সাবিয়া আক্তার

ব্যাগ শুধু ফ্যাশনের অনুষঙ্গ হিসেবেই কাজ করে না, দৈনন্দিন জীবনে এর যথেষ্ট প্রয়োজনও রয়েছে। ঘর থেকে যেসব জিনিস নিয়ে বের হতে হয় তার মধ্যে অন্যতম ব্যাগ। কারণ ব্যাগের মধ্যেই যে অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বহন করতে হয়। ব্যাগ ব্যবহারে এখন এসেছে পরিবর্তন। বদলে  গেছে ব্যাগের নকশা ও ধরন। বাজারে পাওয়া যাচ্ছে বাহারি রং ও বিচিত্র নকশার ছোট-বড় ব্যাগ। বর্তমানে কাপড়ের তৈরি ব্যাগের চাহিদা একটু বেশি। বড় ঝোলানো ব্যাগ, কাপড়ের তৈরি হাতের ছোট ব্যাগ বেছে নিচ্ছেন ক্রেতারা। লম্বা বেল্টের ঝোলানো ব্যাগের পাশাপাশি ছোট হাতলের ব্যাগও এখন চলছে বেশ। জানালেন নিউমার্কেটে ব্যাগ বিক্রেতা জামিল হোসেন। কেউ কেউ পোশাকের সঙ্গে ম্যাচিং করে ব্যবহার করেন ব্যাগ। আবার এর পাশাপাশি কন্ট্রাস্ট স্টাইলেও ব্যাগ নিতে পছন্দ করেন অনেকে। সব পোশাকের সঙ্গে ব্যাগ ম্যাচিং করা সম্ভব নাও হতে পারে। সেক্ষেত্রে জুতো, ঘড়ি বা অন্য কোনো অনুষঙ্গের সঙ্গে মানিয়ে ব্যাগ ব্যবহার করা যেতে পারে। বাজারে চামড়া ছাড়াও কাপড়, পাট ও বিভিন্ন উপাদানের ছোট, বড় ও মাঝারি আকারের ব্যাগ পাওয়া যাচ্ছে। পাশাপাশি পার্টি ব্যাগ ও বটুয়ার জনপ্রিয়তাও কম নয়। সবসময়ই চামড়ার তৈরি জিনিসের কদর কিছুটা বেশি। ব্যাগের ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম নয়। উপাদান, কাপড় এবং কৃত্রিম বা আসল চামড়ার তৈরি মাঝারি ও বড় আকারের ব্যাগের প্রতিই ক্রেতাদের আগ্রহ বেশি। এসব ব্যাগের দাম তুলনামূলক কম। কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, অফিসে যাওয়ার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে চামড়ার ব্যাগ। এসব ব্যাগ অন্যান্য যেকোনো ব্যাগের তুলনায় টেকসই বেশি। আগে ব্যাগের হাতলের সঙ্গে ব্যবহারের জন্য আলাদা করে কিনতে হতো পুতুল কিংবা কার্টুন। কিন্তু এখন ব্যাগের সঙ্গে এগুলো থাকে। বিভিন্ন উৎসব কিংবা অনুষ্ঠানে একটু বড় আকারের পার্টি ব্যাগ এবং ক্লাচ বেশ জনপ্রিয়। বাজারে পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন নকশায় চামড়ার ওপর পাথর ও মখমলের কাজ করা পার্টি ব্যাগ। এমব্রয়ডারি করা পুঁতি বসানো, কাপড়ের ওপর পুঁতির কাজ করা, শীতল পাটি, পাট ও জুয়েলারি স্টোন বসানো ব্যাগ। নিউমার্কেট, বায়তুল মোকাররম মার্কেট, শাহবাগ পিজি মার্কেট, চকবাজার, সদরঘাট এবং মিরপুর-১ নম্বরে পাওয়া যাবে বিভিন্ন ধরনের ব্যাগ। ব্যাগের দাম পড়বে দেশি-বিদেশি অনুপাতে। দেশীয় ফ্যাশন ঘরগুলোতে কাপড়ের ওপর লেস, চুমকি ও পুঁতি বসানো ব্যাগ পাওয়া যায়। এগুলোর দাম শুরু ৫০০ টাকা থেকে। পাশাপাশি ফার ও লেদারের পার্টি ব্যাগ পাওয়া যাবে ৭০০ টাকা থেকে এক হাজারের মধ্যে। বড় বড় শপিং কমপ্লেক্সগুলোতে পাওয়া যাবে বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা গুচি, বারবেরি, ভারসাচে, মাইকেল কোরস ইত্যাদি ব্র্যান্ডের ব্যাগ। ব্র্যান্ড ও আকার ভেদে এসব ব্যাগের দাম পড়বে ছয় হাজার থেকে ২২ হাজার টাকা। আড়ংয়ে মাঝারি আকারের চামড়ার ব্যাগ পাওয়া যাবে এক হাজার ৬শ টাকা থেকে সাত হাজার টাকার মধ্যে।

সর্বশেষ খবর

তারুন্য এর আরো খবর

    আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

    Developed by